আজ আইএসএলের সুপার সানডে তে মুখোমুখি এটিকে মোহনবাগান ও এফসি গোয়া। বর্তমানে ১০ ম্যাচে ২০পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে এটিকেএমবি ব্রিগেড। ১১ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে এফসি গোয়া। প্রথম পর্বের ম্যাচে গোয়াকে ১-০ গোলে হারিয়েছিল অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাসের দল। দ্বিতীয় লেগের খেলাতেও তিন পয়েন্টের লক্ষ্যেই ঝাঁপাতে চলেছে  সবুজ-মেরুণ ব্রিগেড। অপরদিকে হাবাস ব্রিগেডকে হারিয়ে লিগ টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসতে মরিয়া জুয়ান ফেরান্ডোর দল। 

৩ পয়েন্ট টার্গেট মোহনবাগানের-
শেষ ম্যাচে মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে হারের মুখ দেখতে হয়েছিল এটিকে মোহনবাগানকে। গোয়ার বিরুদ্ধে সেই হার থেকে শিক্ষা নিয়ে ঘুড়ে দাঁড়াতে মরিয়া লোপেজ হাবাসের দল। মাঝমাঠের সমস্যা মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। ডেভিড উইলিয়ামস ও মনবীর সিংরা ছন্দে না থাকায় রয় কৃষ্ণার সাপ্লাই লাইন কমে যাচ্ছে। তাই গোলের সুযোগও কম তৈরি হয়েছে মুম্বই ম্য়াচে। তবে স্বস্তির খবর এই ম্যাচে ফিরছেন বাগান মাঝ মাঠের তারকা কার্ল ম্যাকহিউজ। তবে মুম্বই ম্যাচের ফল নিয়ে মোটেই ভাবতে রাজি নয় হাবাস। নিজের দলের উপর আত্মবিশ্বাসী বাগানের স্প্যানিশ কোচ জানিয়েছেন,'আগের ম্যাচটি আমাদের কাছে অতীত। এটা ফুটবল। শেষ ম্যাচে কী হয়েছে, তা না ভেবে পরবর্তী ম্যাচের জন্য আরও বেশি করে পরিশ্রম করতে হবে এবং সেই ম্যাচ জয়ের জন্য ঝাঁপাতে হবে।' তবে প্রতিপক্ষ গোয়াকে যথেষ্ট সমীহ করছেন হাবাস। তবে ম্যাচ থেকে ৩ পয়েন্ট পাওয়ার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী সবুজ-মেরুণ ব্রিগেড।

আক্রমণাত্বক ফুটবলই ভরসা এফসি গোয়ার-
অপরদিকে, প্রতিযোগিতায় দুয়েকটি ম্যাচ ছাড়া ভালো ফর্মে রয়েছে এফসি গোয়াও। ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে ড্রয়ের পর শেষ ম্যাচে জামসেদপুরকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে জুয়ান ফেরান্ডোর দল। শেষ ম্য়াচে দলের প্রধান স্ট্রাইকার ইগর আঙ্গুলো না খেললেও দলের পারফরমেন্সে  খুশি টিম ম্যানেজমেন্ট। মোহনবাগানের বিরুদ্ধেও তিন পয়েন্ট পেতে মরিয়া গোয়ার দলটি। আঙ্গুলো, অর্টিজ, জেসুরাজ, নগুউয়েরা, ফেমান্ডেসদের আক্রমণাত্বক ফুটবলের উপর ভরসা করে বাগান বধের ছক কষছে ফেরান্ডোর দল। এই ম্যাচ জিততে পারলে লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে ওঠার হাতছানিও রয়েছে এফসি গোয়ার সামনে।

ম্যাচ প্রেডিকশন-
দুই দলেই রয়েছে একাধিক তারকা। ফলে আজ রবিবাসরীয় ম্যাচে একেবারে হাড্ডাহাড্ডি ম্যাচ হতে চলেছে এই বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তবে বড় ম্যাচে যেই দল প্রথমে গোল করবে তাদেরই জয়ের সম্ভাবনা বেশি বলেই মনে করছেন ফুটবল বিশেষজ্ঞরা।