আইএসএলে স্বপ্নের ফর্মে রয়েছে এটিকে মোহনবাগান। জয়ের হ্যাটট্রিক করে বর্তমানে লিগ টেবিলের শীর্ষে রয়েছে অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাসের দল। এবারের আইএসএলে এখনও পর্যন্ত টানা তিন ম্যাচ কোনও দব জিততে পারেনি। আজ ফের চতুর্থ জয়ে লক্ষ্যে মাঠে নামছে সবুজ-মেরুণ ব্রিগেড। প্রতিপক্ষ জামশেদপুর এফসি। প্রতিযোগিতায় তিনটি ম্যাচ খেললেও, এখনও জয় অধরা ওয়েন কোয়েলের দলের।  ফলে আজ জিততে মরিয়া জামশেদপরও। আর আরও একটি টানটান ম্যাচ দেখার অপেক্ষায় ফুটবল প্রেমিরা।

হাবাসের জয়ের মন্ত্র-
দলের পারফরমেন্সে খুশি সমর্থকরা, অনেকেই বলছেন স্বপ্নের ফর্ম। কিন্তু দলের পারফরমেন্সে এখনও পুরোপুরি তুষ্ট নন বাগানে স্প্যানিশ কোচ। আত্মতুষ্টিতে না ভুগে, চতুর্থ ম্যাচে নামার আগে দলের যাবতীয় ভুল ত্রুটি শুধরে নিয়ে জামশেদপুরের বিরুদ্ধে ঝাঁপাতে চাইছে এটিকে মোহনবাগান। দল প্রতি ম্যাচে গোল পেয়েছে। দুরন্ত ছন্দে রয়েছে দলের প্রধান স্ট্রাইকার রয় কষ্ণা। রক্ষণেও এখনও পর্যন্ত গোল হজম করতে হয়নি সন্দেশ ঝিঙ্গান, তিরি, প্রীতম কোটালদের। তবে আজকের ম্যাচে জামশেদপুর তথা আইএসএলের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার নেরিউস ভাল্সকিসকে দলের রক্ষণকে বাড়তি সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন হাবাস। শুধু মাত্র মাঝ মাঠে এখনও ততটা সৃজনশীল ফুটবল খেলতে পারেনি হাবাসের দল। জামশেদপুর ম্যাচের আগে হাবাস বলেছেন,'জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করা গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সেটা করেছি। আর জিততে শুরু করলে দলের আত্মবিশ্বাস বাড়ে। আমাদেরও সেটাই হয়েছে।'

লড়াই দিতে প্রস্তুত জামশেদপুর-
অপরদিকে, তিনটি ম্য়াচ খেলে ফেলেছেন ওয়েন কোয়েলের দলও। কিন্তু এখনও জয় অধরা জামশেদপুর এফসির। ২টি ম্যাচ ড্র ও একটি ম্যাচে হারের মুখ দেখতে হয়েছে জামশেদপুরকে। তবে আজ জয়ের ফিরতে মরিয়া জামশেপুর এফসি।  আজ জয়ে ফিরতে দলের চার অস্ত্রের উপরই মূলত ভরসা করচেন জামশেদপুর কোচ। প্রধান অস্ত্র যেমন স্ট্রাইকার নেরিউস ভাল্সকিস, এছাড়াও রয়েছেন রক্ষণে স্কটল্যান্ডের মাদারওয়েল এফসি ক্লাবের অধিনায়কত্ব করে আসা স্টপার পিটার হার্টলি। আক্রমণে ‍‘ফ্রি-ম্যান’ ব্রাজিলীয় ফরোয়ার্ড আলেক্সান্দ্রে লিমা। আর ডান প্রান্তে ভারতীয় জ্যাকিচন্দ সিংহ। ফলে আজ হাবাসের দলকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিতে প্রস্তুত কোয়েলের দল।

ম্যাচ প্রেডিকশন-
প্রতিযোগিতায় এখনও পর্যন্ত অপরাজিত এটিকে মোহনবাগান। তিন ম্যাচে শুধু জয় পাওয়াই নয়, এখনও পর্যন্ত একটিও গোল হজম করতে হয়নি হাবাসের রক্ষণকে। অপরদিকে, গোল করলেও, তিন ম্যাচে গোল  তার থেকে বেশি খেয়েছে জামশেদপুর। ফলে রক্ষণের সমস্যা রয়েছে তা প্রমাণিত। এছাড়া এই মুহূর্তে আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে রয়েছে কলকাতার প্রধানের। ফলে ফুটবল বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন আজকের ম্যাচও জেতায় সম্ভাবনা বেশি এটিকে মোহনবাগানের।