আলিপুরদুয়ারের পর এবার জলপাইগুড়ি। ডুয়ার্সের চা-বাগানে নালা থেকে ফের উদ্ধার হল চিতাবাঘের দেহ। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ধুপগুড়ির মোরাঘাট চা বাগানে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অনুমান, চিতাবাঘটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। দেহটি ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে বনদপ্তর। 

জানা গিয়েছে, ধুপগুড়ির মোরাঘাট ও হলদিবাড়ি চা বাগানের মাঝে রয়েছে একটি নালা। মঙ্গলবার দুপুরে যখন চা বাগানে শ্রমিকরা কাজ করছিলেন, তখন মোরাঘাট চা বাগানের ৪ নং সেকশন এবং হলদিবাড়ি  বাগানের ২৪ নং সেকশনে মাঝে রাস্তার পাশে ওই নালাতে চিতাবাঘের দেহটি পড়তে থাকতে দেখেন তাঁরা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন চিতাবাঘের গায়ে গভীর ক্ষত ছিল। তাহলে কি অবলা প্রাণীটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে? স্থানীয় অনুমান তেমনই। খবর দেওয়া হয় বনদপ্তরে। ঘটনাস্থলে যান বনদপ্তরের বিন্নাগুড়ি রেঞ্জে আধিকারিক(বন্যপ্রাণ) সীমা চৌধুরী। নিয়মমাফিক চিতা বাঘের দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়ে দিয়েছেন বনকর্মীরা। তবে মৃত্যু কারণ স্পষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি।

আরও পড়ুন: পর পর তিন বছর, নেওড়াভ্যালি-তে ফের দেখা মিলল রয়্যাল বেঙ্গল-এর

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগেই আলিপুরদুয়ারের কালচিনি এলাকায় একটি চা বাগান থেকে একটি পূর্ণবষষ্ক চিতাবাঘের দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। স্থানীয় ভাটপাড়া চা বাগানে একটি নালার মধ্যে চিতাবাঘের দেহটি দেখতে পান শ্রমিকরা। তবে সেবার প্রাণীটি গায়ে কোনও আঘাতের চিহ্ন ছিল না বলে জানা গিয়েছে। দেহটি উদ্ধার করে বক্সা ব্র্যাঘ্র প্রকল্পের পানা রেঞ্জের কর্মীরা।  ডুরার্সে একের পর এক চিতাবাঘের মৃত্য়ুতে উদ্বিগ্ন পরিবেশপ্রেমীরা।