'বছর ঘুরে মা যে আবার এল ফিরে' এই বার্তার সঙ্গেই দুর্গা পুজোর আয়োজন শুরু করেছে বিভিন্ন পুজো কমিটিগুলি। ইতিমধ্যেই পাড়ায় পাড়ায় বাঁশ পড়ার শব্দ শুরু হয়ে গিয়েছে। আর পুজোটা যদি কলকাতার হয় তাহলে তো কোনও কথাই নেই। তার ওপর আবার থিম পুজোর দৌড়ে কলকাতা তো একেবারেই শীর্ষে। আর তার মধ্যে সেরার লড়াইয়ে এগিয়ে থাকতে প্রস্তুতি নিচ্ছে ক্লাবগুলি। সেই মতই এবছরে আবার এক নতুন থিমে তাদের মণ্ডপ সজ্জিত করতে চলেছে ৬৬ পল্লী। 

৬৮ পেরিয়ে এবার ৬৯-এ পা দিল এই ক্লাব। অন্যান্য বছরের মত এবছরেও নতুনত্ব থিমে সেজে উঠবে তাদের পুজোমণ্ডপ। এবার তাদের নতুন ভাবনা 'উৎসব'। বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজো। উৎসব আনন্দে মুখরিত করে সকলকে। তবে এই উৎসবের পিছনে থাকে অনেকের অক্লান্ত পরিশ্রম। প্যান্ডেলের লোক থেকে শুরু করে পুরোহিত। ঢাকি থেকে পটুয়া। সকলকেই দুমুঠো ভাতের যোগান দেয় এই উৎসব। এরকমই প্রদীপের নীচে থাকা মানুষগুলিকে নিয়েই তাদের এই চিন্তা ভাবনা। শিল্পী অনিমেষ দাসের ভাবনায় এমনই উৎসবের চিত্র উঠে আসতে চলেছে ৬৬ পল্লীর পুজোমণ্ডপে। আট থেকে আশির সেরা পার্বণকে যারা নিজেদের অক্লান্ত পরিশ্রম দিয়ে পৌঁছে দিয়েছেন আন্তর্জাতিক মানচিত্রের শ্রেষ্ঠ উৎসবের তালিকায় তাদের কুর্নিশ করাই এবারের লক্ষ্য এই ক্লাবের।  

গতবছরেও এক অভিনব থিম দর্শনার্থীদের উপহার দিয়েছিল । গতবছর তাদের থিম ছিল 'বয়নের চালচিত্র'। বাংলার তাঁত শিল্পের অসাধারন দৃশ্য ফুটে উঠেছিল তাদের প্যান্ডেলে। তবে এবার চমকটা ঠিক অন্যরকম।  ৬৬ পল্লীর উৎসবে মাতবে সকলে। এই উৎসবের আনন্দ নিতে গেলে অপেক্ষার আর মাত্র কয়েকদিন।