বৃষ্টির ফাঁড়া কাটল। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, ছট পুজোয় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি নেই বঙ্গে। তবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তরবঙ্গের উপরের জেলাগুলিতে খুব হালকা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তারপর থেকে রাজ্য জুড়ে শুষ্ক আবহাওয়া থাকবে। তবে ছট পুজোর পরে পশ্চিমের জেলাগুলিতে রাতের তাপমাত্রা দুই থেকে তিন ডিগ্রি নামতে পারে।  এমনই আবহাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছেন আলিপুর আবহাওয়া দফতরের অধিকর্তা সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়। শীত এখনই না ঢুকলেও সকালে ও রাতের দিকে হাল্কা ঠান্ডা অনুভব করছে কলকাতা।  

তবে শুষ্ক আবহাওয়া থাকলেও রাজ্যে এখনই শীত ঢুকছে না বলে জানিয়ে দিয়েছে হাওয়া অফিস। আগামী ৩ দিন বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই রাজ্যে। শুষ্ক আবহাওয়া তাপমাত্রা স্বাভাবিকের কাছেই থাকবে। সকালের দিকে সামান্য শীত শীত ভাব থাকলেও এখনই রাজ্যে  শীত নয় তা আগেই জানিয়ে দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, আরব সাগরের ওপর একটি ঘূর্ণিঝড় রয়েছে ওটি ওমানের দিকে চলে গেলে উত্তর-পশ্চিম হাওয়া ঢুকতে পারে। তখনই তাপমাত্রা নামার সম্ভাবনা তৈরি হবে। কয়েকদিনের মধ্যেই আবহাওয়ার গতি প্রকৃতি দেখে তা নির্ধারণ করা যাবে।

তবে হাওয়া অফিস যাই বলুক না কেন, সকালে হাঁটতে বেরিয়ে খাস কলকাতার বুকে গরম জামা নিচ্ছেন ওয়াকাররা। যা বুঝিয়ে দিচ্ছে কালী পুজো,ভাইফোঁটা চলে গেছে,দরজায় কড়া নাড়ছে শীত। কার্তিক মাসের এই সময়টা ঘিরেই সবথেকে চিন্তায় থাকেন পরিবারের বড়রা। কারণ সামান্য ঠান্ডা অনেক সময় গ্রাহ্য করে না বাড়ির ছোটরা। কিন্তু দেখা যায়, এই ঠান্ডা থেকেই ঘুসঘুসে সর্দি, কাসি শেষে বাড়িতে উপদ্রব বাড়ে ভাইরাল ফিবারের।