বাংলা বলতেই মনে আসে 'আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি'। রবীন্দ্রনাথের সেই গান আজও বাংলার গর্ব। কিন্তু বাঙালিরা এই বাংলাকে প্রায় ভুলতে বসেছে। সেই বাংলাকেই আবার বাঙালীর মনে জায়গা করে দিতে আসছে বিবেকানন্দ মিলন সংঘ। সেখানকার পুজোর থিমের মধ্যেদিয়েই উঠে আসবে সেই বাঙালিয়ানার ছবি।

শরতের নীল আকাশ আর শিউলির গন্ধ যেন মায়ের আগমণ বার্তা দিচ্ছে। মা আসছে, সেই আনন্দেই মেতে উঠেছে সকলে। পাড়ায় পাড়ায় প্যান্ডেলে থিমের কাজ এখন চলছে জোরকদমে। এই সব কিছুই মায়ের আসার আগাম বার্তা যা বলে দিচ্ছে হাতে আর মাত্র কটা দিন তার পরেই মা আসবে স্বপরিবারে। আর সেই মাকে বিবেকানন্দ মিলন সংঘ এবার উপহার হিসাবে চলেছে আমাদের এই বাংলাকে। এবছর তাদের থিমে থাকছে 'এসো বাংলার কথা কই'। কলকাতার পুজো দেখতে যে শুধু বাংলার লোকেরাই আসে তাই নয় বাইরে থেকেও বহু সংখ্যক মানুষ এখানে আসেন ঠাকুর দেখতে। আর সেই জন্যই  বাংলার সমাজ থেকে শুরু করে বাংলার শিক্ষা, সংস্কৃতি সব কিছুই গোটা বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে তাদের এই পরিকল্পনা।

প্রতিবছরই বিবেকানন্দ মিলন সংঘে থাকে আকর্ষণীয় সব থিম। আগের বছর তাদের থিমের মধ্যে দিয়ে উঠে এসেছিল সমাজে নারীদের অবস্থানের এক ভয়ঙ্কর ছবি। এবছরও সেখানে থাকছে বিশেষ চমক। এবছর তাদের পুজো ৭০ বছরে পা দিচ্ছে। ৭০ বছর পুর্তি উপলক্ষে সেখানে এবছরও থাকছে বিশেষ চমক। এবছর সেখানে দেখা যাবে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলার লোক সংস্কৃতি। পুরুলিয়ার ছৌ নাচ থেকে শুরু করে নদিয়ার বাউল-ফকির গান সবেরই দেখা মিলবে এবার সেখানে। সেখানকার এই আকর্ষনীয় থিম যে সবার নজর কারবে সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। আর তাই একই সঙ্গে বাংলার সব জেলার শিল্পের স্বাদ গ্রহণ করতে যেতেই হবে বিবেকানন্দ মিলন সংঘে। বাঘাযতীন স্টেশন রোডের এসপিডি ব্লকে গেলেই দেখা মিলবে এই আকর্ষনীয় থিমের।