রবিবার শেষ দফার ভোট। চলছে জোর কদমে প্রচার পর্ব। এমনই অবস্থায় মঙ্গলবারের অস্থির অবস্থাকে কেন্দ্র করে নির্বাচন কমিশন কমিয়ে দিল বাংলার ভোট প্রচারের সময়সীমা। তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে নানান জল্পনা হলেও অবশেষে শান্ত হল শহর।

বৃহস্পতিবার শেষ প্রচারের ঠেলায় গলি থেকে রাজপথ সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভরে গেছিল মিটিং-এ মিছিলে। পায়ে পা মিলিয়ে সমস্ত রাজনৈতিক দল রাস্তায় নেমেছিল শেষ মুহুর্তের ভোট প্রচার পর্ব সারতে। ক্রমেই ঘড়ির কাঁটা যতই এগোতে থাকে ততই তড়িঘড়ি বক্তব্য পৌঁচ্ছে দেওয়ার কাজ মেটাতে থাকেন প্রার্থীরা।

রাত দশটা বাজলেই বন্ধ হয় মাইকের শব্দ, বন্ধ হয় প্রচার। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে শেষ দফার ভোট গ্রহণকে কেন্দ্র করে কলকাতার উত্তাল পরিস্থিতিকে সামাল দিতেই শুক্রবারের বদলে বৃহস্পতিবার ইতি টানতে হয় নির্বাচনী কাজে।

এদিন রাত দশটার পর থেকে আর কোনও প্রচার কাজ চালাতে পারবে না দলীয় কর্মীরা। ফলেই প্রধানমন্ত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রী দিনভোর সাজিয়ে নিয়েছিলেন নিজেদের কর্মসূচী। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই শেষ হল এবার মতন বাংলার প্রচার। এবার অপেক্ষা কেবল ফলাফলের, কার দখলে যাবে দিল্লীর মসনদ, ২৩ তারিখ তারই অন্তিম রায় জানাবেন সাধারণ মানুষ।