Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Park Street Christmas: ওমিক্রন হুমকির মধ্যে বড়দিনে জনাকীর্ণ পার্কস্ট্রিট, ভাইরাল ভিডিও


ওমিক্রন উদ্বেগের মধ্যে ভাইরাল ক্রিসমাস রাতে (Chrismas 2021) কলকাতার পার্ক স্ট্রিটের (Park Street, Kolkata) ছবি ও ভিডিও (Viral Video)। সত্যি হলে এই ছবি খুবই ভয়ের। 

Crowded Park Street at Christmas amid Omicron's threat, viral video  ALB
Author
Kolkata, First Published Dec 26, 2021, 7:24 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

দিন দুই আগে দিল্লির (Delhi) এক মার্কেটে ছবি দেখে দিল্লি পুলিশ (Delhi Police) ও সরকারের (Delhi Govt) তীব্র সমালোচনা করেছিল সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court)। ক্রিসমাসের রাতে (Chrismas 2021) কলকাতার পার্ক স্ট্রিটের (Park Street, Kolkata) যে ভিড়ে ভিড়াক্কার ছবি ও ভিডিও ভাইরাল (Viral Video) হয়েছে, তা দেখলে হয়তো বিচারপতি চেয়ার ছেড়েই পড়ে যাবেন, আঁতকে উঠবেন চিকিৎসকরা। 

দেশে ওমিক্রন (Omicron) আক্রান্তের সংখ্যা শনিবার রাতে সাড়ে চাড়শ' পেরিয়ে গিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) এখনও পর্যন্ত ৪। করোনার এই নতুন রূপান্তর কীভাবে বাড়তে পরে, তার হাতে গরম উদাহরণ রাজস্থান (Rajasthan)। একদিনে এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্য়া প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে, ২২ থেকে ৪৩। এরই মধ্যে যখন কেন্দ্রের পক্ষ থেকে বারবার করে রাজ্য গুলিকে নাইট কারফিউ-এর (Night Curfew) মতো কোভিড বিধি ফের লাগু করার আহ্বান জানানো হচ্ছে, বিশেষ করে বড়দিন ও বর্ষবরণের উৎসবের রাতগুলিতে, সেই সময় চমকে দিচ্ছে কলকাতার পার্কস্ট্রিটের ভাইরাল হওয়া ছবি ও ভিডিও।

কী দেখা যাচ্ছে সেইসব ছবি ও ভিডিওয়? ভিড়ে ভিড়াক্কার। যতদূর পর্যন্ত দেখা যাচ্ছে, আলো ঝলমলে পার্ক স্ট্রিটে শুধুই মাথার ভিড়। বেশ কিছু মাথায় সান্টা ক্লজের লাল-সাদা টুপিও রয়েছে। কিন্তু, মুখে মাস্ক বড়ই বিরল। কারোর কারোর সঙ্গে মাস্ক রয়েছে, তবে তা থুতনি কিংবা কানে ঝুলছে। আর এই ভিড়ের মধ্যে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা 'মুশকিলই নেহি, না মুমকিন হ্যায়'। মাস্ক দেখা যাচ্ছে শুধুমাত্র পুলিশকর্মীদের মুখে। তবে, মাস্ক না থাকার কারণে পুলিশ কাউকে বাধা দিচ্ছে, এমন দৃশ্য দেখা যায়নি। 

এশিয়ানেট নিউজ বাংলার পক্ষ থেকে এই ছবি ও ভিডিওর সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি। তবে, এটি যদি সত্যি হয়ে থাকে, তাহলে ওমিক্রন সংক্রমণের হুমকির মধ্যে, এই ছবি ও ভিডিও অত্যন্ত ভয়ঙ্কর বলতে হবে। ওমিক্রন, ডেল্টার থেকেও ৩ গুণ বেশি সংক্রামক বলে আগেই সাবধান করেছে কেন্দ্র। বাংলায় যে ৪ জন ওমিক্রন রোগীকে সনাক্ত করা হয়েছে, তাদের মধ্য়ে কলকাতা মেডিকাল কলেজ হাসপাতালের এক জুনিয়র ডাক্তার আছেন, যাঁর বিদেশ ভ্রমণের কোনও ইতিহাস নেই। বিদেশ ফেরত কারোর সঙ্গে তিনি দেখাও করেননি। কাজেই স্থানীয় স্তরে ওমিক্রন ছড়াতে শুরু করেছে বলে আশঙ্কা করছেন ডাক্তাররা। এই অবস্থায়, যেখানে গোটা বিশ্ব বড় জমায়েত এড়াতে চাইছে, সেখানে কলকাতার এই ছবি একেবারেই কাম্য নয়। পশ্চিমবঙ্গ ডক্টর্স ফোরামের পক্ষ থেকেও এই বিষয়ে বারবার সতর্ক করা হচ্ছে।

তবে, পার্ক স্ট্রিটে যদি সত্য়িই এই ধরণের ভিড় হয়ে থাকে, তাহলে তার দায় নিতে হবে প্রশাসনকেও। উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, ওড়িশা, হরিয়ানা, কর্নাটক-সহ ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে, ওমিক্রন সংক্রমণের প্রেক্ষিতে, বিশেষ করে উৎসবের দিনগুলিতে কঠোরভাবে নাইট কারফিউ জারি করা হয়েছে। সেই সঙ্গে, আরও বেশ কিছু কোভিড বিধি আরোপ করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে, সর্বশেষ নির্দেশিকা অনুযায়ী, আগামী ১৫ জানুয়ারি তারিখ পর্যন্ত নাইট কারফিউ জারি থাকলেও, ২৫ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি পর্যন্ত তা শিথিল করা হয়েছে। প্রশাসন শৈথিল্য দেখালে সাধারণ মানুষের আর কী দোষ?

দেশের সবথেকে বেশি ওমিক্রন সংক্রামিতের সংখ্য়া রিপোর্ট করা হয়েছে মহারাষ্ট্র থেকে। শনিবার সকালে, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক (Union Heath Ministry) জানিয়েছিল, ভারতে কোভিড-১৯'এর ওমিক্রন রূপান্তরের যে ৪১৫ টি কেস চিহ্নিত করা হয়েছে, তার মধ্যে মহারাষ্ট্র থেকেই সর্বোচ্চ সংখ্যক সংক্রমণের ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে, ১০৮ টি। তারপর আছে দিল্লি (Delhi), ৭৯ টি। শনিবারও মহারাষ্ট্র থেকে আরও ২ টি ওমিক্রন সংক্রমণের ঘটনা রিপোর্ট করা হয়েছে। ফলে, এই রাজ্যের ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা ১০৮ থেকে বেড়ে ১১০ হয়েছে। কেরল থেকেও এদিন ওমিক্রন ভেরিয়েন্টের ১ টি নতুন কেস সনাক্ত করা হয়েছে। ফলে দক্ষিণের রাজ্য করোনার নতুন রূপান্তরে সংক্রামিতের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৮। 
 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios