হাথরসে ঢুকতে গিয়ে পুলিশি বাধার মুখে পড়তে হয়েছে তৃণমূলের প্রতিনিধি দলকে। যার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও উত্তরপ্রদেশের এই ঘটনা নিয়ে পাল্টা তৃণমূলকে কাঠগড়ায় তুলেছেন বিজেপির রাজ্য় সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মেদিনীপুরের সাংসদ বলেন,রাজ্য়ে 'মা মাটি মানুষের' যাত্রাপালা উঠে গেছে। তাই উত্তরপ্রদেশে গিয়েছে তৃণমূলের প্রতিনিধি দল।

তমলুকে দিলীপ ঘোষ বলেন, হাথরসের ঘটনায় সর্বোচ্চ আইনি পদক্ষেপ নিয়েছে উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার। যেখানে কিছু হলেই বিরোধীরা সিবিআই তদন্তের দাবি তোলে, সেখানে যোগী সরকার নিজে থেকেই হাথরসের ঘটনায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। এবার যাদের সিবিআইতে ভরসা নেই,তাদের ভগবানেও ভরসা নেই। তৃণমূল ওকানে নাটক করতে গিয়েছে। রাজ্য়ে এখন 'মা মাটি মানুষের' যাত্রাপালা উঠে গেছে। তাই উত্তরপ্রদেশে গিয়েছে তৃণমূলের প্রতিনিধি দল।

একই কথা শোনা গিয়েছে বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়ের গলায়। তাঁর দাবি, উত্তরপ্রদেশে গিয়ে তৃণমূল যা করেছে বাংলায়ও আকছার এমনই ঘটনা মানুষ দেখতে পায়। এদিন কলকাতা বিমানবন্দরে মুকুল রায় বলেন, পশ্চিমবঙ্গের কোথাও শাসক দল বাদে কোনও রাজনৈতিক দল প্রতিবাদ করতে গেলে কীভাবে আটকানো হয়, তা সবার অজানা নয়। এদিকে শুক্রবার হাথরাসে নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গেলে ডেরেক ও 'ব্রায়েনের নেতৃত্বাধীন দলকে আটকানো হয়। উত্তরপ্রদেশের পুলিশ ডেরেককে ফেলে দেন বলে অভিযোগ করেছেন সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার। তাদেরও মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন সাংসদ।