লকডাউনের দিনেও আজবকাণ্ড ঘটল বেহালার শিশিরবাগানে। আসল স্বামীকে ছেড়ে ফেসবুকে পরিচয় হওয়া এক যুবককে দ্বিতীয়বার বিয়ে করার অভিযোগ উঠল এক গৃহবধূর বিরুদ্ধে। জানাগেছে, ফেসবুকে পরিচয় হওয়ার পর কোচবিহার থেকে বেহালায় ওই গৃহবধূর বাড়িতে আশ্রয় নেয়ছিল যুবক। গৃহবধূ দ্বিতীয়বার বিয়ের পর যুবকের সঙ্গে মিলে তাঁর আসল স্বামীর উপর অত্য়াচার করত বলে অভিযোগ। প্রতিবেশীদের অভিযোগের ভিত্তিতে যুবক ওই মহিলার বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় বেহালা থানার পুলিশ।

মহিলার স্বামী জানিয়েছেন, কোচবিহারের ওই যুবকের সঙ্গে ছয় মাস আগে পরিচয় হয়েছিল তাঁর স্ত্রীর। তারপর থেকেই তাঁদের আলাপচারিতা বাড়তে থাকে। ফোনে কথা বলা শুরু হয়। নয় দিন আগে কোচবিহার থেকে তাঁর বাড়িতে চলে আসে ওই যুবক। নিজেকে রাজনৈতিক দলের কর্মীর পরিচয় দেয়। কৌশিকী অমাবস্যার দিন স্বামীর অজান্তেই যুবকের সঙ্গে তাঁর স্ত্রী বিয়ে করে বলে অভিযোগ। তারপর থেকেই দুজনে মিলে আসল স্বামীর উপর অত্যাচার করে বলে অভিযোগ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, একটি ছেলে আছে ওই মহিলার। আসল স্বামী থাকতে অন্য যুবককে বিয়ে করার উচিত নয় বলে মনে করেন তাঁরা। তাঁর আসল স্বামীর উপর অত্যাচারের অভিযোগ জানাজানি হতেই পুলিশে খবর দেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ওই মহিলার বাড়িতে বেহালা থানার পুলিশ গিয়ে যুবককে তুলে নিয়ে যায়। এই ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।