ছিলেন আইপিএস, হয়ে গেলেন আইএএস।  কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার, এখন সিআইডি-এর এডিজি পদে কর্মরত রাজীব কুমারকে আনা হল প্রশাসনে। তথ্য ও প্রযুক্তি দপ্তরের প্রধান সচিব হলেন তিনি। এতদিন এই দপ্তরের অতিরিক্ত দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব দেবাশিস সেন। বদল হয়েছে আরও  বেশ কয়েকটি দপ্তরেও।

সারদাকাণ্ড নাম জড়িয়েছে আইপিএস অফিসার রাজীব কুমারের। তাঁর বিরুদ্ধে তথ্য-প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ এনেছে সিবিআই। শুধু তাই নয়, রাজীব কুমারকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জেরাও করতে চান কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা। গ্রেফতারি এড়াতে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার। গত ১ অক্টোবর রাজীবের আগাম জামিনের আবেদন মঞ্জুরও করে আদালত। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে আবার সুপ্রিম কোর্টে পাল্টা মামলা করেছে সিবিআইও। সেই মামলার রাজ্যের এই আইপিএস অফিসারকে নোটিশ পাঠিয়েছে শীর্ষ আদালত। 

সারদা মামলার নাম জড়ানোর পরই কলকাতা পুলিশ কমিশনারের পদ থেকে রাজীব কুমার সরিয়ে দেয় রাজ্য সরকার। তাঁকে বদলি করে দেওয়া হয় সিআইডি-র এডিজি পদে। ফের বদলি হলেন রাজী কুমার। তবে এবার আর পুলিশে নয়, এই আইপিএস অফিসারকে আনা হল প্রশাসনে। নবান্ন থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে সিআইডি-এর এডিজি পদে কর্মরত রাজীব কুমারকে তথ্য-প্রযুক্তি দপ্তরের প্রধান সচিব পদে বদলি করার কথা জানানো হয়েছে।   উল্লেখ্য, এ রাজ্যে আইপিএস অফিসারদের সচরাচর প্রশাসনিক পদে বদলি করা হয় না। ২০১৩ সালের পর আর কোনও আইপিএস অফিসারকে বিভাগীয় সচিবের পদে নিয়োগও করা হয়নি। ফলে রাজীব কুমারের বদলিতে অবাক অনেকেই।