সল্টলেকের বনবিতানকে (সেন্ট্রাল পার্ক-এর সৌন্দর্যায়ন করতে উদ্যেগ নিল বন দফতর। আজ বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্য়োপাধ্যায় ও দমকল মন্ত্রী সুজিত বোস সব আধিকারিকদের নিয়ে বন বিতান পরিদর্শন করেন। আধিকারিকদের সঙ্গে নির্দিষ্ট পরিকল্পনা নিয়ে কথা হয় তাঁদের।

এলাকার বাসিন্দারা জানান, এই পার্কে প্রতিদিন প্রচুর মানুষ প্রাতঃভ্রমনে আসেন। সারা দিন বহু মানুষ ও যুবক যুবতী আসেন ঘুরতে। এছাড়া প্রচুর গাছের সঙ্গে  রয়েছে বিশাল জলাশয়। এখন দেখা যাচ্ছে এই পার্কে মানুষের আসা আগের থেকে অনেক কমে গেছে। সেই সব দিক মাথায় রেখে এই পার্ককে মানুষের কাছে আরও আকৃষ্ট করে তুলতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। আগে প্রচুর পরিযায়ী পাখি এই ঝিলে আসত কিন্তু সেটাও কমে গেছে।

এদিন বৈঠক করে রাজীব বন্দ্য়োপাধ্য়ায় জানান,কলকাতার কাছে এবং বিধাননগর-এর প্রাণ কেন্দ্রে সুন্দর পার্ক রয়েছে যেটা বনবিতান নামে পরিচিত।এই বনবিতানে যেমন রোজ গার্ডেন আছে ,একদিকে ন্যাচারাল জঙ্গল আছে আর একদিকে আধুনিক মানের পার্ক আছে।এই টাকে আরও সুন্দর করে সাজানো যায় যাতে আগামী দিনে এই প্রাণ কেন্দ্র সাধারণ মানুষের জন্য আরও বেশি করে আকর্ষণীয় করা যায়, তার জন্য বন দফতরকে অনুরোধ করেছে সেই জন্য এটা দেখতে এসেছি ।  চেষ্টা করছি,আগামী দিনে বনবিতানকে আরও সুন্দর করে কী কী ইনস্টল করা যায়,আরও আকর্ষণীয় করার জন্য কী কী করা যায় এই নিয়ে আলোচনা করেছি । 

সুজিত বোস জানান,প্রায় ৭০ একর জমি নিয়ে বন দফতরের উদ্যেগে অনেক দিন আগে থেকে এটা চলছে। জায়গাটাকে আরও ভালো করে কীভাবে সৌন্দর্যায়ন করা যায়, তার পরিকল্পনার জন্য আজ এসেছি। একদিন সকালে এসেছিলাম সেখানে কিছু কিছু মানুষের কিছু অভিযোগ ছিল । এখানকার টয়লেটগুলোকে ঠিক করা, রাস্তাগুলো ঠিক করা, একটা বড় জলাশয় আছে সেটাকে ভালো করা। এইগুলো বাস্তবায়িত করার জন্য যা যা করার করব।এখানে বাচ্চাদের জন্য একটা চিলড্রেন্স পার্ক করা হবে। এছাড়া এবার পার্কে থাকার সময়ও এক ঘন্টা বাড়ানো হল। আগে বিকেল পাঁচটায় বন্ধ হত পার্ক। এবার থেকে যা ছটায় বন্ধ হবে।