এবার মহালয়ার গায়েও লাগল রাজনীতির রং। সৌজন্যে বিজেপি। যদিও গেরুয়া ব্রিগেডের দাবি, কোনও জবরদোস্তি কার্যক্রম উদ্দেশ্য নয় তাঁদের, কেবল নিহত কর্মীদের প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য় জানাতেই এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। 

বাদ গেল না তর্পণও। রাজ্যে দলীয় কর্মীদের মৃত্যুতে বাগবাজারে তর্পণ কর্মসূচি পালন করল বিজেপি। উপস্থিত ছিলেন দলের কার্যকরী সভাপতি জেপি নাড্ডা। এদিন শুরুতেই বিজেপির অফিস থেকে বাগবাজার ঘাটে প্রতীকী অস্থিকলস নিয়ে শুরু হয় যাত্রা। দলের নিহত কর্মীদের পরিবারও অংশ নিয়েছিল এই প্রতীকী যাত্রায়।  বিজেপির তরফে জানানো হয়েছে রাজ্যে ৮০ জন নিহতের পরিবার অংশ নেবে এই প্রতীকী যাত্রায়। জেলায় জেলায় প্রতীকী অস্থি কলস নিয়ে হবে এই যাত্রা। 

পরে দলের নিহত কর্মীদের উদ্দেশ্যে বাগবাজার ঘাটে নেমে তর্পণ করেন জগৎপ্রকাশ নাড্ডা। সঙ্গে ছিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়,লকেট চ্যাটার্জি সহ অন্যান্য বিজেপির নেতা। গতকালই দিল্লি থেকে কলকাতায় আসেন নাড্ডা। ২০১৮ সালে পুরুলিয়ায় রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হয় ৬ বিজেপির কর্মীর। ভোট পরবর্তী সময়ে সন্দেশখালি,হুগলিতে বিজেপি কর্মী মৃত্যুর পিছনে শাসক দলের হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেন পরিবারের সদস্যরা। খোদ বিজেপির রাজ্য সভাপতি বহুবার বলেছেন,রাজ্যে কোনও গণতন্ত্র নেই। সেকারণে বার বার তৃণমূলের হাতে তাঁদের কর্মীদের মৃত্যু হচ্ছে।