রেলের কর্মদক্ষতা বাড়ানোর জন্য় এবার ইসরো অর্থাৎ স্পেস রিসার্স অরগানাইজেনের সাহায্য় নেওয়া হবে। এর ফলে যাত্রী সরক্ষা বাড়বে। রেল দুর্ঘটনা অনেকটা পরিমানে কমবে। এবং রেলযাত্রীরা নির্দিষ্ট সময় অন্তর ট্রেনের সঠিক তথ্য় পায় সেই জন্য়ই এই পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। এর ফলে রেলের সার্বিক উন্নতি আশা করছেন রেল কর্তারা।

আরও পড়ুন, প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে ম্য়ারাথনে, ১৫ ডিসেম্বর দৌড়বে কলকাতা

রেলের জন্য় জিপিএস নির্ভর একটি বিশেষ যন্ত্র তৈরী করছে, ইসরো। স্য়াটেলাইটের মাধ্য়মে যাবতীয় তথ্য় আদানপ্রদান হবে। যাতে ট্রেন কোথায় দাড়িয়ে আছে বা ট্রেনের অবস্থান নিয়ে যাত্রীদের জানানো হবে। এতে যাত্রীদের ভোগান্তি কমবে। ট্রেন লেট হলেও প্রত্য়েকেই সেটা আগে থেকেই জেনে যাবে। অপর দিকে, রেল দূর্ঘটনা এড়ানো যাবে। 

আরও পড়ুন, পশ্মিমী ঝঞ্ঝা ও নিম্নচাপে আটকে শীত, রাজ্যে ৪৮ ঘণ্টা পর নামবে পারদ

হাওড়া থেকে দিল্লি, হাওড়া থেকে চেন্নাই, মুম্বই থেকে হাওড়া , দিল্লি থেকে চেন্নাই এবং  দিল্লি থেকে মুম্বই রুট- এ প্রাথমিকভাবে এই প্রযুক্তি প্রয়োগ করা হবে। তারপর ধীরেধীরে ভাল প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেলে, রেলের সব বিভাগেই এই ব্য়বস্থা নেওয়া হবে।  ইস্ট্রান রেলওয়ে-র সিপিআরও নিখিল কুমার চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ট্রেনের  রিয়েল টাইম ডাটা পাওয়ার মাধ্য়মে রেল চলাচল আরও সুনির্দিষ্ট করা যাবে।