ষষ্ঠতম কলকাতা ম্য়ারাথন এবার অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ১৫ ডিসেম্বর।  টাটা স্টিলের তরফে এই উদ্য়োগ নেওয়া হয়েছে   , যার নাম দেওয়া হয়েছে  'টাটা স্টিল কলকাতা ২৫কে ২০১৯'। এবং এবারের অন্য়তম আকর্ষণ বিশেষভাবে সক্ষম যারা, তারা স্বতঃফূর্তভাবে এই ম্য়ারাথনে নামছেন।  ইচ্ছাশক্তির থেকে যে আর কোনও বড় শক্তি নেই সেটাই মনে করাবে এই শহরকে, ১৫  ডিসেম্বরের এই ম্য়ারাথন।

আরও পড়ুন, পশ্মিমী ঝঞ্ঝা ও নিম্নচাপে আটকে শীত, রাজ্যে ৪৮ ঘণ্টা পর নামবে পারদ

বুধবার রেডরোডে 'টাটা স্টিল কলকাতা ২৫কে ২০১৯'-এর রুট ম্য়াপ উদ্ভোদন করলেন ট্রাফিকের ডেপুটি কমিশনার সন্তোষ পান্ডে, রেস ডিরেক্টর হিউজ জোনস্, চিকিৎসক সংযুক্তা দত্ত, কমলেশ চট্টোপাধ্য়ায়, আইপিএস মিরাজ খালিদ, আইপিএস বিবেক সহায় এবং আরও বিশিষ্ট জনেরা। তবে আগের বারের থেকে রুট ম্য়াপ-র অনেকটাই বদল হয়েছে। স্পোর্টস যে আসলে আমাদের ভিতরের শক্তিকে টেনে বার করে আনে,  কলকাতা ম্য়ারাথন তার অন্য়তম নিদর্শন, জানালেন কর্মকর্তারা। আরও জানালেন জোর করে নয়, যতক্ষণ শরীর দেবে ততক্ষন ই দৌড়ানো উচিত। শারীরিকভাবে কোনওরকম অস্বস্থি হলে মোটেই লজ্জা না পেয়ে বরং বিশ্রাম নেওয়া উচিত।

আরও পড়ুন, মুখ্য়মন্ত্রীর যদুবাবুর বাজারে যাওয়ার পরই ম্য়াজিক, পেঁয়াজের দাম কমল রাতারাতি

ম্য়ারাথন দৌড় শুরু হবে, সকাল ৫: ৪০ থেকে ১০ কিমি-র জন্য় 'পুলিশ কাপ' দিয়ে এবং ৮:৪০ এ শেষ হবে ৫কিমি-র জন্য় 'আনন্দ দৌড়' দিয়ে। এখানে প্রতিযোগীদের জন্য় থাকবে শহরের একটি বেসরকারী হাসপাতালের মেডিক্য়াল টিম। প্রত্য়েক প্রতিযোগীর জন্য়ই থাকবে প্রাতরাশের ব্য়বস্থা। এছাড়াও থাকবে নির্দিষ্ট রাস্তার মাঝে মাঝে জলপানের ব্য়বস্থা, এনার্জি ড্রিঙ্ক, আইস এন্ড সল্ট স্টেশন। থাকবে বজ্য় ফেলার সুনির্দিষ্ট ব্য়বস্থা। কলকাতা ম্য়ারাথনের বিজেতাকে দেওয়া হবে আর্থিক পুরষ্কার।