বহুদিন ধরেই পরিকল্পনা চলছে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো পরিষেবা শুরু করার। পথে এসেছে নানা বাধা-বিপত্তি। সম্প্রতি মেট্রোয় ঘটে গিয়েছে এক ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা যাতে প্রাণ হারান কসবার বাসিন্দা সজল কাঞ্জিলাল নামের এক ব্যাক্তি। ঘটনার ফলে আতঙ্কিত হয়েছিল গোটা নগরবাসী, তারপরে মেট্রোর উন্নয়নের জন্য নানা উদ্যোগ নিতে শুরু করে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। আস্তে আস্তে কাটতে শুরু করে মানুষের ভয়ও। সেই সব ভয় কাটিয়ে ও মানুষের সমস্ত আশা বাস্তবায়িত করে খুব শীঘ্রই চালু হতে চলেছে মেট্রোর ইস্ট-ওয়েস্ট পরিষেবা। 

ইতিমধ্যেই সম্পূর্ণ হয়েছে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর ১০০০ ঘণ্টার ট্রায়াল রান।  মঙ্গলবার থেকে আবার শুরু হয়েছে চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল রানও। মেট্রো রেল আধিকারিকেরা মনে করছেন হয়তো আর কিছুদিনের মধ্যেই চালু হয়েই যাবে এই পরিষেবা। তবে স্থায়ী পরিষেবার শুরুর আগে যাত্রী সুরক্ষার ব্যাপারে ভালভাবে নজরদারি করছে কলকাতা মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ। আপাতত সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম পর্যন্ত মোট ৬টি স্টেশনের ওপর দিয়ে ছুটবে এই নতুন মেট্রো। 

শুধু মেট্রোর যাত্রা পথই নয় স্থীর হয়ে গিয়েছে মেট্রোর ভাড়াও। সর্বনিম্ন ভাড়া ধার্য হয়েছে ৫ টাকা। তবে ২-৫ কিলোমিটারের জন্য দিতে হবে ১০ টাকা, ৫-১০ কিলোমিটার হলে ২০ টাকা, আর ১০ কিলোমিটারের ঊর্ধ্বে ৩০ টাকা ভাড়া দিতে হবে। 

সব কিছু স্থীর হলেও স্টেডিয়াম ও বেঙ্গল কেমিক্যাল এই দুটি স্টেশনকে এখনও দমকল থেকে কোনও ছাড়পত্র দেয়নি। তবে এই সমস্ত কাজ শেষ হলেই চালু হবে এই নতুন মেট্রো পরিষেবা। মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ আশা করছে অগাস্ট মাস থেকেই পাওয়া যাবে এই পরিষেবা। এই পরিষেবাতে উপকৃত হবে বহু সংখ্যক মানুষ। পূজোর আগে সমস্ত মেট্রোর যাত্রীদের জন্যই এটা একটা বড় সুখবর বলে মনে করছেন মেট্রোরেল আধিকারিক।