আগামী ৮ সেপ্টেম্বর সকাল থেকেই চলবে মেট্রো। সকাল ৮টা থেকে মেট্রো পরিষেবা পাওয়া যাবে রাত ৮টা পর্যন্ত। এমনই খবর পাওয়া গিয়েছে মেট্রো রেল সূত্রে। ইতিমধ্য়েইমঙ্গলবার এই নিয়ে মিটিং হয়েছে। 

মিটিংয়ে টোকেন ছাড়াই মোট্রো পরিষেবা চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যাদের কাছে স্মার্টকার্ড থাকবে আপাতত তারাই মেট্রোয় যাতায়াতের সুযোগ পাবেন। তবে লাইন দিয়ে রিচার্জ করতে হবে না এই কার্ড। মেট্রো অ্য়াপের মাধ্য়মে রিচার্জ করা যাবে এই স্মার্ট কার্ড। সিদ্ধান্ত হয়ে রবিবার বন্দ রাখা হবে মেট্রো পরিষেবা।

আনলক ফোর শুরু হতেই ফের ঘুরতে চলেছে মেট্রো রেলের চাকা। আগামী ৮ সেপ্টেম্বর থেকেই ফের চালু হচ্ছে কলকাতা মেট্রো রেল পরিষেবা। দীর্ঘ লকডাউনে মেট্রো পরিষেবাকে আরও উন্নত  করতে বেশকিছু পরিকাঠামোগত পরিবর্তন করা হয়েছে। আগামী দিনে যার সুফল পাবে রাজ্য়বাসী। 

যাত্রী চলাচলের চিন্তা না থাকায় ভালোভাবে এগিয়েছে মেট্রোর সংস্কারের কাজ। সম্প্রতি দমদম মেট্রো স্টেশনের ইনক্লাইনড প্লেট বদলে ফেলা হয়েছে। আগে দমদম আপ প্ল্যাটফর্ম থেকে নোয়াপাড়ার দিকে যাওয়ার সময় লাইন বদল করতে মেট্রো রেকের অনেক বেশি সময় লাগত। পুরোনো প্লেট হওয়ার কারণে গতি  কমাতে হত চালককে। কিন্তু এবার আর সেই সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না।  কারণ দমদমে নতুন এসকালেশেন প্লেট বসানো হয়েছে। যার ফলে নোয়াপাড়া পর্যন্ত যেতে আরও মসৃণ যাত্রা হবে মেট্রোর। 

আগে মেট্রোর রেকের একটি লাইন থেকে অন্য লাইনে যেতে সময় লাগত।  নতুন প্লেট বসানোর ফলে দ্রুত লাইন শিফটিং করতে পারবে রেক। ফলে যাত্রাও আগের থেকে অনেক বেশি মসৃণ হবে।  সূত্রের খবর, নোয়াপাড়া থেকে কবি সুভাষ এই ৩০ স্টেশনে লকডাউনে বহু কাজ হয়েছে। বহু স্টেশনে আধুনিক চলমান সিড়ি বসানো হয়েছে। স্টেশনের যেসব জায়গায় আলো বসানোর প্রয়োজন ছিল তারও ব্যবস্থা করেছে কর্তৃপক্ষ।  জানা গিয়েছে, আগামী দিনে মেট্রো চালু হলে  টোকেনের ব্য়বস্থা রাখা হচ্ছে না। সেই জায়গায় স্মার্ট কার্ডেই ভরসা রাখতে হবে যাত্রীদের।