রাতভর দমকা হাওয়ায় পড়ল একাধিক গাছ। তুমুল ঝড় না হলেও জানালায় জানান দিল আশঙ্কার হওয়া। আবহাওয়া অফিস আগেই জানিয়েছিল, বুধবার ৪৫ কিলোমিটার বেগে হাওয়া বইবে রাতভর। কোথাও কোথাও হাওয়ার গতিবেগ আরও বেশি হতে পারে। দেখা গেল, বাস্তবেও মিলে গেল হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস। 
 
আলিপুর আবহাওয়া দফতর বলছ, বঙ্গোপসাগরে তৈরি নিম্নচাপে আজ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় দিনভর বৃষ্টি চলবে। কলকাতাও তার ব্যতিক্রম হবে না। তবে সারারাত বৃষ্টি হওয়ায় তাপ কমেছে মহানগরের। সকাল ৬টায় তিলোত্তমার তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। বাতাসে আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ ৯৭ শতাংশ।  উত্তর বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের প্রভাবে আজ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। বাতাসে জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় আদ্রতা জনিত অস্বস্তিও থাকবে। নিম্নচাপের প্রভাবে উপকূলের জেলাগুলোতে ঝোড়ো হাওয়া বইবে। দীঘা মন্দারমনি সহ সমুদ্রসৈকতে সর্তকতা জারি। আজ ও কাল মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধাজ্ঞা।

আজ দক্ষিণবঙ্গের  সব জেলাতেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস। বজ্রবিদ্যুৎ সহ দু-এক পশলা হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে । বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণ ২৪পরগনা পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর ঝাড়গ্রাম বাঁকুড়া পুরুলিয়া পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান হাওড়া হুগলিতে। আগামীকাল পশ্চিমের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। পশ্চিম মেদিনীপুর ঝাড়গ্রাম বাঁকুড়া পুরুলিয়া এই চার জেলায় বৃহস্পতিবার ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা দু-এক পশলা। শুক্রবার থেকে আবহাওয়ার উন্নতি।

উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। সপ্তাহান্তে বৃষ্টি বাড়তে পারে উত্তরবঙ্গে। কলকাতায় মূলত মেঘলা আকাশ। কয়েক পশলা হালকা মাঝারি এবং দু-এক পশলা ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। বুধবার সকাল থেকে উত্তর বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়ে রয়েছে যার প্রভাবে দফায়-দফায় বৃষ্টি চলছে। এই নিম্নচাপের জেরে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃষ্টি বাড়বে বৃহস্পতিবার থেকে। যতদূর খবর, রবিবার উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে আরও একটি নিম্নচাপ তৈরি হতে পারে। মৌসুমী অক্ষরেখা বিকানির, জয়পুর এবং ছত্তিসগড়ের নিম্নচাপের মধ্যে দিয়ে জামশেদপুর, দিঘা হয়ে উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে বিস্তৃত। যার প্রভাবে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে রাজ্যে।