সামনেই ক্রিসমাস। এদিকে জাঁকিয়ে শীতও পড়েছে বাংলায়। এসময় সকলেই প্রায় ঘুরতে যাওয়ার মনোভাবে রয়েছে। এদিকে কোভিড আবহে এবছর বাতিল হল পৌষমেলা। তবে বিশ্বভারতীর অন্দরের পৌষ উৎসব হবে নিয়ম মেনেই। এবং সেই সঙ্গে সুখবর সঙ্গীত মেলার উদ্ধোধন করলেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। সঙ্গীত মেলা অনুষ্ঠিত হবে কলকাতার ১০ মঞ্চে। সুতরাংএবার করোনা আবহ হলেও হতাশ হবার কারণ নেই। মনের মিলন হবে এই মেলাগুলিতেই।

 
প্রসঙ্গত জাঁকিয়ে শীতে এক অপরূপ সুন্দর হয়ে ওঠে গোটা শান্তিনিকেতন। ঘন কুয়াশার মাঝে যখন বিশ্বভারতীয় বৃহৎ গাছগুলি ভেদ করে আলো বেরিয়ে আসে, তখন মনটা শান্ত হয়। প্রসঙ্গত, ১৮৯৪ সাল থেকে এই তৃতীয়বার বন্ধ করা হল পৌষ মেলা। এর আগে ১৯৪৩ সালে দুর্ভিক্ষের কারণে এবং ১৯৪৬ সালে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার জন্য পৌষ মেলা বাতিল করা হয়েছিল। তবে এবার বিশ্বভারতীর অন্দরে নিয়ম মেনেই পৌষ উৎসব হবে। 

অপরদিকে, ইতিমধ্য়েই সঙ্গীত মেলার উদ্ধোধন করছেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। ২৩ ডিসেম্বর উদ্বোধনের পর বিশিষ্ট শিল্পীদের সম্মান জানানো হবে। ২৪ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর অবধি সাতদিনের জন্য মেলা অনুষ্ঠিত হবে কলকাতার ১০ মঞ্চে। সেগুলি হল-রবীন্দ্রসদন, শিশির মঞ্চ, রবীন্দ্র-ওকাকুরা ভবন, ফণীভূষণ বিদ্য়াবিনোদ যাত্রা মঞ্চ, হেদুয়া পার্ক, মধুসূদন মুক্তমঞ্চ, একতারা মুক্ত মঞ্চ, বড়িশা ক্লাব ময়দান, দেশপ্রিয় পার্ক, রাজ্য সঙ্গীত একাডেমি মুক্তমঞ্চ।