২০ টাকার জন্য মানুষ খুন। ঘটনাটি ঘটেছে, ঠাকুরপুকুরের মুকুন্দদাস পল্লীতে। অভিযোগ টাকা নিয়ে বচসার জেরে এক ব্য়ক্তিকে মাথায় ইট দিয়ে মারে অভিযুক্ত। যার জেরে প্রাণ হারান ওই ব্য়ক্তি।

পুলিশ সূত্রে খবর, ঠাকুরপুকুরের মুকুন্দদাস পল্লীতে রিকসা চালাতেন বছর ৩৫-এর গৌতম। সম্প্রতি মদের ঠেকে তার সঙ্গে বচসা বাধে মূল অভিযুক্ত অশোকের। জানা গেছে, গৌতমের থেকে ২০টাকা  নিয়ে বচসা বাধে অশোকের। নিজের টাকা ফেরত চায় অশোক। তা থেকেই বাধে উত্তেজনা । এক সময় গৌতমের ওপর চড়াও হয় অভিযুক্ত। দুজনের হাতাহাতি বাধলে গৌতমের মাথা ইট মেরে থেঁতলে দেয় অশোক। যার  জেরে মারা যান তিনি।  

পরে তার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয় রাস্তার ধারে একটা অস্থায়ী দোকানের মধ্যে । পুলিসের প্রাথমিক অনুমান, ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে মারা হয়েছে গৌতমকে। পুলিস কুকুর দিয়েতদন্ত শুরু হতেই মিলেছে সূত্র। জানা গেছে,অভাবের সংসারে গৌতম রিকশা চালিয়ে  টাকা রোজগার করত। গতকালই এই ঘটনায় ৪ জনকে আটক করেছিল পুলিশ। সিসিটভির ফুটেজ দেখা হয়েছে। এদিন ঠাকুরপুকুর মার্ডার কেসের মূল অভিযুক্ত অশোক রায় ও তার বন্ধু রবি দাসকে  ঠাকুরপুকুর থানার পুলিশ গ্রেফতার করেছে । তবে মাত্র ২০ টাকার জন্য খুনের ঘটনা মেনে নিতে পারছে না এলাকাবাসীরা। সবার মুখেই এক কথা, বর্তমান যুগে একজন মানুষের জীবনের মূল্য ২০ টাকা হতে পারে না। 

মহানগরের বুকে এই ঘটনা অবশ্য় অবাক করেনি মনোবিদদের। তাঁদের মতে, অনেক সময় মাত্রাতিরিক্ত রাগের বশে এই কাজ করে ফেলে মানুষ। তার মানে সেই মানুষের মন অপরাধপ্রবণ এরকমটা নাও হতে পারে। এখানে মদের নেশাতেও এই কাজ করে থাকতে পারে অভিযুক্ত। তদন্ত সম্পূর্ণ হলেই সত্য বেরিয়ে আসবে।