ঘূর্ণীঝড় আমফানের তাণ্ডবে ব্য়পক ক্ষতিগ্রস্থ কলকাতা।  শহর জুড়ে প্রায় হাজার হাজার গাছ পড়ে রাস্তা বন্ধ হয়ে আছে৷ এবার কলকাতার পাঁচটি জায়গা উদ্ধার কাজে নামলেন কেন্দ্রীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী বা এনডিআরএফ।

আরও পড়ুন, ঘূর্ণীঝড় আমফানের থাবা শহরের ৩০০টি রেশন ঘরে, ক্ষতিগ্রস্থ ৯০ কোটির খাদ্য়সামগ্রী


দীর্ঘ লকডাউনের মাঝেই একটু একটু করে ধাপেধাপে ফিরছিল কলকাতার যান চলাচল পরিষেবা। আর তার মাঝেই ঘূর্ণীঝড় আমফান এসে কার্যতই লন্ডভন্ড করে দিয়েছে রাজ্য়ের সড়ক পরিষেবা। শহরে আনাচেকানাছে প্রকাণ্ড বহুদিনের পুরোনো গাছ গুলি পড়ে আছে। যার জেরে চলাচল বন্ধ। সূত্রের খবর, ঘূর্ণীঝড় আমফানের তাণ্ডবে অসংখ্য় বড় গাছ পড়ে বাতি স্তম্ভ সহ  কলকাতা জুড়ে বিভিন্ন রাস্তাঘাটই বন্ধ হয়ে আছে। কলকাতা পুরসভা প্রশাসকমন্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন,আগামী ৭ দিনের মধ্যে সেই সব রাস্তাই ইতিমধ্য়ে খুলে দেওয়ার প্রস্তুতিতে কাজ করবে এনডিআরএফ৷ আর ইতিমধ্য়েই কলকাতার পাঁচটি  জায়গা উদ্ধারের কাজ শুরু করে দিয়েছে এনডিআরএফ।

 আরও পড়ুন, ঘূর্ণীঝড়ের তাণ্ডবে বিপর্যস্ত রাজ্যের অধিকাংশ সাবস্টেশন, এখনও বহু জায়গায় ফেরেনি বিদ্যুৎ পরিষেবা
 
  এক একটা টিম-র সঙ্গে রয়েছেন ১৮ জন করে সদস্য। একজন ইন্সপেক্টর, সাব ইন্সপেক্টর সহ মোট ১৮ জন এক একটি জায়গা নেমেছেন সুপার সাইক্লোন আমফানে  ক্ষতিগ্রস্ত গাছগুলোকে কেটে ফেলে রাস্তা পরিষ্কার করার কাজে। এই ধরনের পাঁচটা টিম বিভিন্ন ভাবে ভাগ করে কলকাতা মূল পথ থেকে গাছগুলো সরানো কাজে নেমে পড়েছে। এই কাজে তার দক্ষতা অর্জন করার ফালে খুব তাড়াতাড়ি উদ্ধার কাজ করে ফেলছেন তারা। এখনও কলকাতা বিভিন্ন জায়গা এইধরনের বড় বড় গাছ পড়ে রয়েছে। পড়ে রয়েছে বিদ্যুৎ এর খুঁটি সহ বিভিন্ন তারের জঞ্জাল। সেই সব সরিয়ে নেওয়ার কাজে তাদের অভিজ্ঞতা নিঃসন্দেহে উদ্ধার কাজকে আরও ত্বরান্বিত করছে বলে মত সাধারণ মানুষের। তবে কলকাতায় যে ভাবে গাছ ইলেকট্রিক পোল সহ একাধিক জিনিস পড়ে রয়েছে সেটা সরাতে ও উদ্ধার কাজ শেষ করতে আরও দু -তিন দিন লাগতে পারে বলে মনে করছে কলকাতা পুরসভা।

আরও পড়ুন, আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা, বিকেলে ফের ভিজতে পারে কলকাতাও