সাধারণ মানুষকে ঠকানো সহজ, তাবলে ভিভিআইপি ! এবার অনলাইনে প্রতারণার শিকার হলেন তারকা সাংসদ নুসরত জাহানের স্বামীও। ভিভিআইপি নম্বর পেতে গিয়ে ৪৫ হাজার টাকা খুঁইয়েছেন তিনি। 

রক্ষে পেলেন না খোদ সাংসদের স্বামী। প্রতারণার জাল থেকে প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী নিখিল জইনকে ঠকাল প্রতারকরা। রঙ্গোলি শাড়ির ডিরেক্টরকে ভিভিআইপি নম্বর গছানোর টোপ দিয়েছিল প্রতারকরা। যাতে ফেঁসে যান নিখিল । শেষমেশ গুজরাত থেকে ধরা পড়েছে প্রতারণা চক্রের এক পান্ডা। এই চক্রের পিছনে আরও কার হাত রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।  

ঘটনার সূত্রপাত একটি ইমেল আইডিকে ঘিরে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই আইডি থেকেই ক্রমাগত নিখিলের মোবাইলে প্রচুর এসএমএস আসতে শুরু করে। প্রতারকরা নিখিলকে জানান , ভিভিআইপি এয়ারটেল নম্বর পেতে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কে ৪৫ হাজার টাকা ট্রান্সফার করতে হবে নুসরতের স্বামীকে। যা করলেই ওই ভিভিআইপি নম্বরের অধিকারি হবেন তিনি। কথামতো ওই ব্যাঙ্কে নির্ধারিত অঙ্কের টাকা পাঠিয়ে দেন নিখিল। পরে বুঝতে পারেন প্রতারণার শিকার হয়েছেন তিনি। কলকাতা সাইবার ক্রাইম শাখায় এই অভিযোগ দায়ের করলে শুরু হয় তদন্ত। ওই নম্বরের অবস্থান দেখে গুজরাতের বরোদা, গউড়ায় হানা দেয় পুলিশ। শেষে গুজরাতের গউড়া থেকে গ্রেফতার করা হয় লাল বাহাদুর রানা নামের এক ব্য়ক্তিকে। তার কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন একটা রাাউটার ছাড়াও এটিএম কার্ড ও চেক বুক পেয়েছে পুলিশ।