রাস্তা থেকে স্কুলে ফেরার জন্য পার্শ্বশিক্ষকদের অনুরোধ করলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এ দিন পার্শ্ব শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক করার পর  সাংবাদিক বৈঠকে এমনই দাবি করলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। একই সঙ্গে তাঁর অভিযোগ, দিনের পর দিন পার্শ্ব শিক্ষকরা যেহেতু আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন, তার ফলে স্কুলগুলিতে পঠনপাঠনে প্রভাব পড়ছে। একই সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, এবার থেকে সাধারণ শিক্ষকদের মতোই পার্শ্ব শিক্ষকদেরও মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পরিদর্শকের কাজ দেওয়া হবে। 

একই সঙ্গে এসএসকে এমএসকে শিক্ষকরা যদি পার্শ্ব শিক্ষকদের মতোই নিয়ম মানতে রাজি হন, তাহলে তাঁদেরও পার্শ্ব শিক্ষকদের মর্যাদা দেওয়া হবে। কতজন এসএসকে এমএসকে শিক্ষক এই শর্তে রাজি, তা তাঁদের জানাতে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। 

বেতন বৃদ্ধির দাবিতে দীর্ঘদিন ধরেই বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন এ রাজ্যের পার্শ্ব শিক্ষকরা। একাধিকবার রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনাতে বসেও জট পুরোপুরি কাটেনি। এ দিন পার্শ্ব শিক্ষক এবং এসএসকে এমএসকে শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, আর্থিক সমস্যা থাকলেও শিক্ষকদের দাবিদাওয়ার প্রতি বরাবরই সহানুভূতিশীল। কিন্তু পঠনপাঠন প্রভাবিত করে পার্শ্বশিক্ষকরা আন্দোলন করলে সরকার যে তা ভাল ভাবে নেবে না, তা এ দিন স্পষ্ট করে দেন পার্থ। 

পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, 'রাস্তাকে রাস্তার মতোই থাকতে দিন। আপনারা আলোচনার টেবিলে থাকুন। প্রতিদিন কিছু না কিছু লোক আরও কিছু পাওয়ার জন্য বিক্ষোভ করছেন। তাতে আমাদের কোনও ক্ষতি নেই। কিন্তু যে স্কুলের সঙ্গে আপনারা যুক্ত সেগুলির ছাত্রছাত্রীদের কথা ভাবুন। তাদের পঠনপাঠান, নিয়মিত স্কুলে আসা, এগুলোর নিয়ে ভাবার জন্যও শিক্ষকদের অনুরোধ করবে। অভিভাবকরাও তো পাল্টা আমার কাছে এসে অভিযোগ জানাচ্ছেন।'