শহরে আনলক ওয়ানে খুলে গেছে সমস্ত অফিস। এদিকে এখনও সাধারণের জন্য় চালু হয়নি  মেট্রো এবং লোকাল ট্রেন পরিষেবা। তার উপর আবার পাবলিক বাসে যত সিট যত যাত্রী। তাই অগত্য় মুখের সামনে থেকে নিত্য় বাস বেরোনোয় বাধ্য় হয়ে গাড়ি করে অনেকে অফিস যাচ্ছে। আবার অনেক প্রাইভেট গাড়ি ভাড়া করছে। কিন্তু এত সবের পরেও অনেকেই বাসের ভরসা দাড়িয়ে রয়েছেন ঘন্টার পর ঘন্টা। সেই বাসেও ভাড়া নেহাত কম নয়।  আর করোনা আবহে এবার এই সব কিছুকে উসকে দিল জ্বালানির দাম। সোমবার কলকাতায় পেট্রোলের দাম বেড়ে দাড়াল ৭৮.১০ টাকা।

বিশ্ব বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম তলানিতে নেমে এসেছে৷ তবে ভারতে প্রায় প্রত্য়েকদিনই একটু একটু করে বেড়েই চলেছে জ্বালানির মূল্য৷ এনিয়ে একটানা ৯ দিন৷ সোমবার লিটার প্রতি আরও ৪৮ পয়সা বাড়ল পেট্রোলের মূল্য৷ ডিজেলের দাম বাড়ল লিটার প্রতি ২৩ পয়সা৷ যার দরুণ গত ৯ দিনে প্রতি লিটারে ৫ টাকা বাড়ল পেট্রোলের দাম৷ এবং এক লিটার ডিজেলের দাম বেড়েছে ৪ টাকা ৮৭ পয়সা৷ সোমবার কলকাতায় এক লিটার পেট্রোলের দাম বেড়ে হয়েছে ৭৮.১০ টাকা৷ অপরদিকে এক লিটার ডিজেল কিনতে গেলে কলকাতায় দাম পড়বে ৭০.৩৩ টাকা৷  দিল্লিতে এক লিটার পেট্রোলের দাম বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৬.২৬ টাকা, ডিজেলের দাম হয়েছে ৭৪.৬২ টাকা৷ মুম্বইতে প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম বেড়ে হয়েছে ৮৩.১৭ টাকা, ডিজেলের প্রতি লিটারে দাম দাঁড়িয়েছে ৭৩.২১ টাকা ৷ চেন্নাইয়ে সোমবার এক লিটার পেট্রোলের দাম পড়ছে ৭৯.৯৬ টাকা৷ চেন্নাইতে এক লিটার ডিজেলের দাম বেড়ে হয়েছে ৭২.৬৯ টাকা৷  

অপরদিকে, আগে টানা ২ মাস সাত দিন অপরিবর্তিত ছিল কলকাতার পেট্রোলের দাম। বিশাল পরিমাণে কেন্দ্রের শুল্ক বৃদ্ধি হলেও কলকাতার পেট্রোলের দামে তার কোনও প্রভাব পড়েনি। দাম আটকে ছিল ৭৩.৩০ টাকায়। ৬৭ দিন পর প্রথম দাম বাড়ে রবিবার। রবিবারই পেট্রোলের দাম হয় ৭৩.৮৯ টাকা। তারপর ধাপে ধাপে সেটা বেড়ে দাড়াল প্রায় ৩ টাকার। তারপর বৃহস্পতিবার  কলকাতায় পেট্রোলের দাম ৭৫.৯৪ টাকায় এসে দাড়াল। তারপর সোমবার  সোমবার ৷ কলকাতায় পেট্রোলের দাম  ৭৮.১০ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭০.৩৩ টাকায় এসে দাড়াল।