আজ মহালয়া। পিতৃপক্ষের অবসান, দেবীপক্ষের সূচনা। এই লগ্নে নবদ্বীপের গঙ্গার ঘাটে ঘাটে চলছে পিতৃ পুরুষের উদ্দেশ্যে তর্পণ। ভোরের আলো ফুটতে না ফুটতেই নবদ্বীপের রানিরঘাট,বড়ালঘাট, শ্রীবাস অঙ্গন ঘাট,পোড়াঘাটে দূরদূরান্ত থেকে হাজার হাজার মানুষ পিতৃ পুরুষের উদ্দেশ্যে তর্পণের জন্য ভিড় করেছেন। কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে চলছে তর্পণ ও গঙ্গাস্থান।  

একদিকে যেমন তর্পণে চলছে , অন্যদিকে অনেকেই এসেছেন ঘুরতে। আজকের দিনটাকে উপভোগ করতে। বন্ধুদের নিয়ে কেউ ব্যস্ত গল্প করতে, কেউ বা ফোনে সেলফি তুলতে। দেবীপক্ষের আগমনে শুভ মহালয়াতে তর্পণের জন্য সকাল থেকেই মানুষজনের ভিড় বর্ধমানের সদরঘাটে । বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে আবার অনেকে এসেছে বন্ধুদের নিয়ে। সকাল থেকেই ছুটির মেজাজ বাঙালি জীবনে। সমস্যা এড়াতে রয়েছে যথেষ্ট পুলিশি নিরাপত্তার ব্যবস্থা।

এবার তর্পণের জন্য গঙ্গার বাবুঘাট, জাজেস ঘাট বাগবাজার ঘাটগুলিতে বিশেষ নজরদারির ব্য়বস্থা রাখা হয়েছে। ডুবুরি ছাড়াও জলজেটের ব্যবস্থা রেখেছে প্রশাসন। এদিন বাগবাজার গঙ্গার ঘাটে বিজেপির তর্পণ কর্মসূচি রয়েছে। দলের ৮০ জন শহিদের প্রতি তর্পণ করবে বিজেপি। যেখানে উপস্থিত হয়েছেন বিজেপির কার্যকরী সভাপতি জেপি নাড্ডা।  ইতিমধ্য়েই দলের তর্পণ কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন হুগলির সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়।