কোথায় কী পড়ানো হচ্ছ সুলুক সন্ধান দেবে  রাজ্য সরকার। আগামী ৩০ ও ৩১ জানুয়ারি রাজ্যে হতে চলেছে এডুকেশন ফেস্টিভ্য়াল। বিশ্ব বাংলা টেন্টকে কেন্দ্র করে সেজে উঠবে এই শিক্ষা উৎসব। এমনটাই জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

এদিন শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, শিক্ষা দফতর ছাড়াও মুখ্য সচিব, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়, প্রেসিডেন্সি ও কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের তত্ত্বাবধানে শুরু হবে এই শিক্ষা উৎসব। মঙ্গলবার একটি বৈঠকে সবার অনুমতি নিয়েই এই উৎসবের প্রস্তাব পাশ হয়। এডুকেশন ফেস্টিভ্যালের প্রস্তাবে সায় দিয়েছেন সবাই। শীঘ্রই রাজ্যের বিশ্ববিদ্যাগুলির  সঙ্গে বসে এই বিশাল আয়োজনের রোড ম্যাপ তৈরি করবে রাজ্য সরকার। এরপরই বাস্তবায়নের দিকে হাঁটবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার।

এই বলেই অবশ্য থেমে থাকেননি শিক্ষামন্ত্রী। এদিন এসএসসি-র চাকরিপ্রার্থীদের নিয়েও মুখ খোলেন পার্থবাবু। তিনি বলেন, শীঘ্রই এসএসসি-র নিয়োগ পক্রিয়া শুরু হবে। ইতিমধ্যেই যারা এসএসসি পরীক্ষায় পাশ করেছেন তাঁদের নিয়োগ করবে সরকার। তবে পার্থবাবুর আক্ষেপ এই চাকরি প্রার্থীদের প্রায় ১৪ হাজার ছেলে মেয়ে রয়েছে। যাদের মধ্যে অতি অল্প সংখ্য়াক ছাত্র ছাত্রী আদলতের দ্বারস্থ হয়েছেন। এই গুটি কয়েক ছাত্র ছাত্রীর জন্যই স্কুলের নিয়োগ প্রক্রিয়া আটকে যাচ্ছে। নিয়োগ নিয়ে আদালতের কাছে ঘুরে বেড়াতে হচ্ছে রাজ্য সরকারকে। শেষ পর্যন্ত যার ফল ভুগছেন চাকরি প্রার্থীরা। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, যেসব এসএসসি চাকরি প্রার্থী চাকরির জন্য আদালতের দ্বারস্থ হচ্ছেন, তাদের কাছে অনুরোধ, সমস্য়া মেটাতে শিক্ষা দফতরের সঙ্গে কথা বলুন। একমাত্র তারাই শিক্ষা সংক্রান্ত কোনও কিছুর সমাধান করতে পারবেন।