ভারত-বাংলাদেশ হাই ভোল্টেজ ফুটবল ম্যাচে পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগ উঠল দর্শকদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ দর্শকদের রোষের মুখ থেকে বাদ যাননি মহিলা পুলিশকর্মীও। পুলিশের অভিযোগ, মহিলা পুলিশকর্মীর শ্লীলতাহানি করেছে দর্শকদের একাংশ। যার জেরে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিশ। 

এমনিতেই ফুলবল খেলা নিয়ে যুবভারতী স্টেডিয়াম জুড়ে ছিল চরম উত্তেজনা। দর্শকদের নিয়ন্ত্রণে আনতে কালঘাম ছুটছিল পুলিশের। যার জন্য একটা সুস্থ ব্যবস্থা করেছিলেন তাঁরা। অভিযোগ , গতকাল ভারত- বাংলাদেশ খেলা চলাকালীন স্টেডিয়ামের ভিতরে বেশ কয়েকজন যুবক পুলিশকর্মীদের গালিগালাজ করে। পুলিশের দিকে মুখ করে বাজে অঙ্গভঙ্গিও করে দর্শকদের কেউ কেউ। ঘটনাস্থলেই যার প্রতিবাদ করেন এক পুলিশ কনস্টেবল। 

পুলিশের অভিযোগ, কেন তাঁদের গালাগালি দেওয়া হচ্ছে জানতে চাইলে পুলিশ কনস্টেবলকে বেধড়ক মারধর করা হয়। এক মহিলা কনস্টেবল বাধা দিতে গেলে তাকেও গালিগালাজ করে ধাক্কা মারে অভিয়ুক্তরা। এরপরই বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিশ তিনজন যুবককে গ্রেফতার করেছে । ধৃতদের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। পুলিশকে সরকারি কাজে বাধা, মারধর এবং মহিলা পুলিশ কর্মীকে শীলতাহানির অভিযোগে ধৃতদের আজ বিধাননগর আদালতে তোলা হবে।

তবে এই প্রথম নয়। যুবভারতীর নিত্যদর্শকরা জানান,যুবভারতীতে দর্শকদের সঙ্গে পুলিশের ঝামেলা নতুন নয়। বহুবার ডার্বি ম্যাচে দর্শক নিয়ন্ত্রণে হাবুডুবু খেতে হয়েছে পুলিশকে। প্রিয় দলের হয়ে গলা ফাটাতে গিয়ে পুলিশের রোষের মুখে পড়তে হয়েছে দর্শকদের। তবে শুধু মাঠে নয়, দর্শক ভর্তি গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে প্রায়শই বচসা বাধে।