রাজ্য়ে তিন বিধানসভা উপনির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা করল তৃণমূল কংগ্রেস। পিছিয়ে থাকল না বামফ্রন্টও। তবে প্রার্থী ঘোষণার ক্ষেত্রে এখনও কারও নাম ঘোষণা করল না বিজেপি। 

গতকাল উপনির্বাচনের নোটিফিকেশন হয়ে গেছে। শুক্রবার থেকে শুরু হয়ে যাবে বিধানসভা উপনির্বাচনের মনোনয়ন জমা দেওয়ার পালা। এই মনোনয়ন জমার দেওয়ার সুয়োগ থাকবে ৬ নভেম্বর পর্যন্ত।  ৭ নভেম্বর স্ক্রুটিনি হবে মনোনয়নের। মনোনয়ন তুলে নেওয়ার শেষ তারিখ ১১ নভেম্বর। এই তিনটি কেন্দ্রে উপনির্বাচন হবে আগামী ২৫ নভেম্বর। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ অনুসারে নভেম্বরের মধ্যেই মিটাতে হবে ভোট পর্ব। তাই ২৮ নভেম্বর হবে ভোটগণনা। 

ইতিমধ্যেই তিন কেন্দ্রে প্রার্থী ঘোষণা করেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। খড়গপুরে এবার তৃণমূলের প্রার্থী প্রদীপ সরকার। কালীয়াগঞ্জে টিকিট দেওয়া হয়েছে তপন দেব সিংকে। অন্যদিকে, করিমপুরে দাঁড়াচ্ছেন বিমলেন্দু সিংহ রায়। এদিকে, শাসক দলের পাশাপাশি নিজেদের তালিকা ঘোষণা করেছে বামফ্রন্ট। বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু জানিয়েছেন, করিমপুর থেকে দাঁড়াচ্ছে বাম মনোনীত সিপিআইএম প্রার্থী গোলাম রাব্বি। বছর ৪০-এর রাব্বি একজন আইনজীবী। তবে করিমপুরে প্রার্থী দিলেও অন্য দুটি আসনে প্রার্থী দিচ্ছে না বামফ্রন্ট। 

সম্ভবত এই দুই আসনে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করায় এখানে প্রার্থী দেবে কংগ্রেস। সম্প্রতি প্রদেশ কংগ্রেস ভবনে একত্রে মিটিং করে বাম-কংগ্রেস। সেখানে সিদ্ধান্ত হয় আগামী দিনে রাজ্যের নির্বাচনে একসঙ্গে লড়বে বাম-কংগ্রেস। বামেরা যেখানে প্রার্থী দিয়েছে সেখানে প্রচারে যাবেন কংগ্রেসের নেতারা। অন্যদিকে কংগ্রেসের প্রার্থীদের হয়ে প্রচার চালাবে সিপিএম। 

বাম-কংগ্রেস যেখানে জোট করে ভোটে লড়বে সেখানে জয়ের বিষয়ে নিশ্চিত তৃণমূল কংগ্রেস। ইতিমধ্য়েই সেই নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পার্থবাবু বলেন, রাজ্যে সাম্প্রদায়িক হানাহানি বন্ধ করতে ফের তৃণমূল কংগ্রেসেই ভরসা রাখবে রাজ্যবাসী। আগামী দিনে বিধানসভার তিন উপনির্বাচন কেন্দ্রেও জয়যুক্ত হবে তৃণমূলের প্রার্থী।