এখন শুধু আনুষ্ঠানিক ঘর ওয়াপসির পালা। কালীঘাটে দিদির কাছে ফোঁটা নিতে যাওয়ায় বিজেপিতে থেকেও নেই শোভন চট্টোপাধ্য়ায়। শোভন তৃণমূলমুখী হওয়ায় এখন বিজেপিতে যেতে বাধা রইল না দেবশ্রী রায়ের। 

তাঁর বিজেপিতে যোগদানের পথে প্রধান বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। নায়দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ককে দেখে একেবারে চমকে যান তিনি। সূত্রের খবর, দেবশ্রী বিজেপিতে যোগ দিলে তিনি বৈশাখী যোগ দেবেন না বলে সরাসরি জানিয়ে দেন শোভন। যার জেরে সেই যাত্রায় দেবশ্রীর বিজেপিতে যোগদান আটকে যায়। 
মুরলীধর স্ট্রিটে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, শোভন ঘাসফুলের পথে হাঁটায় এখন দেবশ্রীর বিজেপিতে যোগদান শুধু সময়ের অপেক্ষা। ইতিমধ্যেই পদ্ম শিবিরে যোগ দিতে অমিত শাহের কাছে চিঠি লিখে ফেলেছেন দেবশ্রী। চিঠিতে রায়দিঘির বিধায়ক জানিয়েছেন, তাঁর নিরাপত্তা নিশ্চিত করলে বিজেপিতে যোগদান করতে বাধা নেই দেবশ্রীর। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই এই চিঠি পাওয়ার পরই রাজ্য বিজেপির বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী। তবে একথা স্বীকার করেননি তিনি। শোনা যাচ্ছে, আনুষ্ঠানিকভাবে পদ্ম শিবিরে যোগ দেওয়ার আগে বিষয়টা খোলসা করতে চাইছেন না তিনি। 

রাজ্য রাজনীতির সাম্প্রতিক অতীত ঘাঁটলে দেখা যাবে, বিজেপিতে যোগ দিতে দিলীপ ঘোষের সল্টলেকের  বাড়িতেও এসেছিলেন অভিনেত্রী। কিন্তু বিজেপির রাজ্য সভাপতি বাড়িতে না থাকায় সে যাত্রায় দিলীপ ঘোষের সঙ্গে কথা হয়নি তাঁর। পরে অবশ্য় দেবশ্রী রায়ের পক্ষেই কথা বলেন মেদিনীপুরের সাংসদ। দিলীপ ঘোষ বলেন, দেবশ্রী রায় বিজেপিতে যোগ দেবেন কি দেবেন না তা দল ঠিক করবে। বিজেপি কোনও ব্যক্তি কেন্দ্রীক দল নয়। তাই কে দলে যোগ দেবে তা কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ঠিক করে দেবে। 

এদিকে, শোভন-বৈশাখীর মমতার  বাড়ি যাওয়া নিয়েও মুখ খুলেছেন বিজেপির এই সাংসদ। তিনি বলেন,দলে শোভনকে কোনও পদে রাখা হয়নি। তাই শোভনের থাকা বা যাওয়াতে বিজেপির কোনও ক্ষতি হবে না। তবে কে কার বাড়িতে ভাইফোঁটা নিতে যাবে তা নিয়ে আপত্তি তোলেননি বিজেপির রাজ্য সভাপতি। উল্টে ভাইফোঁটা প্রসঙ্গে শোভনের পাশেই দাঁড়িয়েছেন দিলীপবাবু। এ বিষয়ে তিনি বলেন, কারও ব্য়ক্তিগত সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করে না বিজেপি। কে কার বাড়িতে ভাইফোঁটা নেবে, কে বিজয়া করতে যাবে এ সবে দল হস্তক্ষেপ করে না।

সব মিলিয়ে রাজ্য রাজনীতির হাওয়া মোরগ বলছে, শোভন তৃণমূলে ঢোকার আগেই বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন দেবশ্রী। দিল্লি থেকে অমিত শাহের সবুজ সংকেত পেলেই মুরলীধর স্ট্রিটের পার্টি অফিসে পদ্ম হাতে দেখা যেতে পারে তাঁকে।