'দিদিকে বলো' এখন পুরনো।  শুরু হয়েছে 'বাংলার গর্ব মমতা'। জনসংযোগের এই বাজারে পুরভোটের সামনে নিতুরিয়া এক কলেজে নজিরবিহীনভাবে শাসকদলের বিধায়কের জন্মদিন পালন করা হল কেক কেটে। আর যার সমালোচনায় মুখর হলেন স্থানীয়রা।

নিতুরিয়া থানার সরবড়ি মোড়ে  পঞ্চকোট মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা মাতলেন দোল উৎসবে। কলেজ ক্যাম্পাসে কাঠি নাচের মধ্য দিয়ে একটি শোভাযাত্রা। তারপর রবীন্দ্রসংগীত গানে নৃত্যানুষ্ঠান হয় কলেজ চত্বরে। একে অপরকে আবির মাখিয়ে রং খেলায় মেতে ওঠেন পড়ুয়ারা। এরপরই শুরু হয় আসল অনুষ্ঠান। রঘুনাথপুরের বিধায়ক পূর্ণচন্দ্র বাউরির জন্মদিন উপলক্ষ্যে বসন্ত উৎসবের মাঝেই কলেজ চত্বরে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে কেক কাটা হয়। এদিন জন্মদিনের কেক কাটার পর তিনি নিজ হাতে কলেজের ছাত্রছাত্রীদের নিজের হাতে কেক খাওয়ান।

এদিকে কলেজের ভেতর নিজের জন্মদিন পালন করে বিধায়কের কেক কাটার ঘটনায় প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়দের একাংশ। অনেকেরই প্রশ্ন, একজন রাজনৈতিক নেতার জন্মদিনে কলেজের ভেতর কেন কেক কাটা হবে? তা-ও দোল উৎসবকে সামনে রেখে? যদিও সরকারিভাবে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব এ নিয়ে মুখ খুলতে চাননি। তবে নাম না-করে দু-একজন বলছেন, এখন তো জনসংযোগের সময়। সামনে ভোট। তাই দোল উৎসবের মতো সুযোগকে হাতছাড়া করতে চাননি বিধায়ক। তবে কলেজের ভেতর কেক কাটার ব্য়াপারটা না-হলেই ভাল হত।