Asianet News BanglaAsianet News Bangla

KMC Election 2021 : ছয় থেকে আট, ভোটার পিছু ২ টাকা নির্বাচনী খরচ বাড়াল রাজ্য নির্বাচন কমিশন

কলকাতা পুরভোটে ভোটার পিছু নির্বাচনী খরচ বাড়াল রাজ্য নির্বাচন কমিশন । এক জন প্রার্থী তার ওয়ার্ডের ভোটার পিছু সর্বাধিক আট টাকা করে খরচ করতে পারবেন। গত বার যা ছিল ৬ টাকা। এবার থেকে তা আরও ২ টাকা বাড়ল। অর্থাৎ ২০১৩ সালের নির্বাচনে কোনও প্রার্থী প্রতি ভোটার অনুযায়ী যদি ছয় টাকা খরচ করতেন, এখন থেকে  তিনি আট টাকা খরচ করতে পারবেন।

West bengal State Election Commission has increased the election expenses by Candidate BRD
Author
Kolkata, First Published Dec 2, 2021, 6:00 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

কলকাতা পুরভোটে একের পর এক বদল। গত শুক্রবার ঘোষণা করা হয় পুরভোটে তৃণমূলের প্রার্থীতালিকা (KMC Election 2021) ।  তৃণমূলের প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করার পরই দেখা যায় একের পর এক বদল। প্রার্থীতালিকায় বদলের পর ক্ষোভে ফুঁসছেন অনেকেই। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই  অস্বস্তিতে রয়েছে তৃণমূল (TMC)। এই দ্বন্দ্বের জেরেই কি আগামী দিনে বিরোধী দলগুলি বাড়তি সুবিধা পেয়ে যাবে? সেই নিয়েও  দলের অন্দরেইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। নাকি শেষ পর্যন্ত এই অশান্তির জেরে ভোট কাটাকুটির সমীকরণ উঠে আসবে? এই নিয়ে ক্রমশ চিন্তা বাড়ছে তৃণমূলের একাংশে। এবার  কলকাতা পুরভোটে  (KMC Election 2021)ভোটার পিছু নির্বাচনী খরচ বাড়াল রাজ্য নির্বাচন কমিশন (West bengal State Election Commission )। এক জন প্রার্থী তার ওয়ার্ডের ভোটার পিছু সর্বাধিক আট টাকা করে খরচ করতে পারবেন। গত বার যা ছিল ৬ টাকা। এবার থেকে তা আরও ২ টাকা বাড়ল। অর্থাৎ ২০১৩ সালের নির্বাচনে কোনও প্রার্থী প্রতি ভোটার অনুযায়ী যদি ছয় টাকা খরচ করতেন, এখন থেকে  তিনি আট টাকা খরচ করতে পারবেন।

পুরভোটের ( KMC Election 2021) নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে বিভিন্ন ধরনের খরচ করেন প্রার্থীরা। কখনও রোড-শো, কোথাও জনসভা,আবার কোথাও পোস্টার এবং ব্যানার দিয়ে চলে প্রচার। এই সব প্রচারের জন্য বেশ কিছু অর্থের প্রয়োজন হয়। কিন্তু সেটি  আবার মাত্রাতিরিক্ত হবে তেমনটাও  নয়। ওই সমস্ত প্রচার এবং একটি প্রার্থীর নির্বাচনের আনুষঙ্গিক খরচ নির্দিষ্ট ভাবে বেঁধে দেয় রাজ্য নির্বাচন কমিশন (West bengal State Election Commission )। এবংপুরোটাই করা হয় আইন মোতাবেক। নিয়ম অনুযায়ী সেই টাকার বাইরে খরচ করলেই সংশ্লিষ্ট প্রার্থীকে তার দায়ভার নিতে হয়। শুধু তাই নয় , আইন ভাঙার কারণে অনেক ক্ষেত্রেই শাস্তির উদাহরণও রয়েছে। সেই কারণেই প্রতিবার নির্বাচনের আগে রিটার্নিং অফিসাররা ব্যয় সংক্রান্ত বিষয়ে প্রার্থীদের উপর খুটিনাটি সবদিকের নজর রাখেন। কোনও প্রার্থীর  বেআইনি অর্থের ব্যবহার দেখলেই তারা  রিপোর্ট করেন রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে। সেই রিপোর্টের ভিত্তিতেই  তারপর কমিশন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয় সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর বিরুদ্ধে।

 

আরও পড়ুন-Mamata Vs Congress: মমতার পুরোনো ষড়যন্ত্র, পিছনে আছেন মোদী - বিস্ফোরক অধীর

আরও পড়ুন-Sovan-Baisakhi: বৈশাখীর সন্তানের বাবা হলেন শোভন, অপেক্ষা এবার বিবাহ বিচ্ছেদের

আরও পড়ুন-Kolkata Airport: করোনার নয়া নির্দেশিকা কলকাতা বিমানবন্দরে, বাধ্যতামূলক হল RT-PCR টেস্ট

 

চলতি বছরের কলকাতা পুরভোটের ( KMC Election 2021) ক্ষেত্রেও নয়া নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন ন (West bengal State Election Commission ) । কলকাতা পুরভোটে এবছর বলা হয়েছে, কোনও ওয়ার্ডে  যদি ১০ হাজার ভোটার থাকে তাহলে  সেখানে সর্বোচ্চ ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ করতে পারবেন কোনও প্রার্থী। এবং ১০ হাজার থেকে ৫০ হাজারের মধ্যে ভোটার হলে ভোটার পিছু ৮ টাকা করে খরচ করা যাবে। আর কোনও ওয়ার্ডে ৫০ হাজারের বেশি ভোটার হলে নির্বাচনের জন্য কোনও প্রার্থী খরচ করতে পারবেন সর্বাধিক ৪ লক্ষ টাকা। এই নয়া নিয়মবিধি মেনেই পুরো খরচ চালাতে হবে একজন প্রার্থীকে। তা না হলেই সমস্যা বাড়বে । তবে ২০১৩ সালের পৌরসভা( KMC Election 2021)  ভোটে ওই অঙ্কটা ছিল পুরোটাই আলাদা।  সেই সময় ১০ হাজার পর্যন্ত ভোটারের ক্ষেত্রে ৬০ হাজার টাকা এবং ৫০ হাজার পর্যন্ত ভোটারের ক্ষেত্রে মাথাপিছু ছয় টাকা এবং তার বেশি ভোটারের ক্ষেত্রে সর্বাধিক ৩ লক্ষ টাকা ব্যবহার করার নিয়ম ছিল। এখন সেই পুরোনো নিয়মেরই পরিবর্তন করল রাজ্য নির্বাচন কমিশন  (West bengal State Election Commission )। এবং ভোটার পিছু ২ টাকা করে খরচ বাড়াল রাজ্য নির্বাচন কমিশন  (West bengal State Election Commission )।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios