বড়দিন এবং নববর্ষের আগেই আলিপুর চিড়িয়াখানায় একসঙ্গে তিন তিনটি নতুন আকর্ষণ। রবিবার থেকেই চিড়িয়াখানায় দর্শকদের সামনে নিয়ে আসা হল নতুন দুই সিংহশাবককে। এর পাশাপাশি চিড়িয়াখানার নতুন বাসিন্দা হল চারটি বুনো কুকুর। নিশাচর প্রাণীদের জন্যও এ দিন আলাদা এনক্লোজারের উদ্বোধন হয় চিড়িয়াখানায়। 

বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় মঙ্গলবার নিশাচর প্রাণীদের এই এনক্লোজারের উদ্বোধন করেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু। দুই মন্ত্রীর উপস্থিতিতেই সিংহ শাবক এবং বুনো কুকুরগুলিকে দর্শকদের সামনে আনা হয়। 

বনমন্ত্রী জানিয়েছেন, দু'টি মেয়ে সিংহ শাবকই আলিপুর চিড়িয়াখানায় জন্মেছিল। তাদের নাম রাখা হয়েছে ইশা এবং নিশা। তার সঙ্গে চারটি বুনো কুকুরও দর্শকদের কাছে আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে বলে আশাবাদী চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ এবং বন দফতর। পাশাপাশি নিশাচর প্রাণীদের এনক্লোজারে বিরল প্রজাতি প্যাঁচা, সজারু, প্যোঙ্গোলিনের মতো প্রাণী রাখা হবে বলে জানিয়েছেন রাজীববাবু। 

গত বছর কলকাতা চিড়িয়াখানায় বড়দিনে রেকর্ড এক লক্ষ পনেরো হাজার দর্শক এসেছিলেন। বনমন্ত্রীর আশা, আগামী ২৫, ৩১ ডিসেম্বর অথবা ১ জানুয়ারি গতবছরের রেকর্ড ভেঙে আরও বেশি সংখ্যক দর্শক আসতে পারেন চিড়িয়াখানায়। বনমন্ত্রী জানিয়েছেন, অদূর ভবিষ্যতে আরও নতুন নতুন প্রাণী নিয়ে এসে চিড়িয়াখানাকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলা হবে।