নতুন বছরে আইফোন সংক্রান্ত নতুন খবর হল, অ্যাপেল  সম্ভবত চারটি আইফোন লঞ্চ করতে পারে।  এই নতুন সংযোজনের মধ্যে জানা গেছে যে দুটি ফোনে ৬ জিবি র‍্যাম থাকবে আর বাকি দুটি ফোনে থাকবে ৪ জিবি র‍্যাম।  অনুমান করা হচ্ছে আইফোন ১২ প্রো এবং আইফোন ১২প্রো ম্যাক্স ফোনে থাকবে ৬ জিবি র‍্যাম।  তবে নতুন ফোনের নাম শেষ মুহূর্তে বদলে যেতেও পারে। আরও যে চমকপ্রদ ঘোষণা আসতে পারে অ্যাপেল সংস্থার কাছ থেকে তা হল- এই বছর অর্থাৎ ২০২০ সালে কিছু কিছু অঞ্চলে ৫জি কানেক্টিভিটি থাকবে নতুন আইফোন মডেলগুলোয়।  এই সব ফোনের ক্যামেরাতেও নতুনত্ব থাকবে- নচ তুলনামূলকভাবে ছোট হবে। 

ম্যাকরিউমারস ওয়েবসাইটে যে রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে সম্প্রতি, তাতে বলা হয়েছে এই বছর চারটি নতুন আইফোন আসতে চলেছে বাজারে।  ইউবিএস বিশ্লেষক টিমোথি আরকুরি এবং মঞ্জুল শাহ মনে করেন,  দুটি আইফোনে ৬ জিবি র‍্যাম থাকবে এবং এই ফোনে তিনটি রিয়ার ক্যামেরা থাকবে যাতে উন্নতমানের ৩ডি সেন্সিং AR সমৃদ্ধ ক্ষমতা থাকবে, একটি ফোনের ডিসপ্লের দৈর্ঘ্য হবে ৬.৭ ইঞ্চি। আর একটি ফোনে ৬.১ ইঞ্চি ডিসপ্লে থাকবে এবং বাকি যে দুটি ফোনে ৪জিবি র‍্যাম থাকবে তাদের ডিসপ্লে হবে যথাক্রমে ৬.১ ও ৫.৪ ইঞ্চি।  এই ফোনগুলোয় দুটি ক্যামেরা থাকবে। প্রত্যেকটি ফোনে ওলেড ডিসপ্লে থাকবে। এইসব নতুন নতুন বৈশিষ্ট্য তো থাকছেই, এছাড়াও প্রত্যেকটি মডেলে বড়ো ব্যাটারি থাকবে। চলতি আইফোন১১ সিরিজের থেকে উন্নতমানের ব্যাটারি হবে এবারে।

এছাড়া, ৫জি কানেক্টিভিটি তো থাকছেই। সব জায়গায় না হলেও অন্তত বেশ কিছু অঞ্চলে ৫জি নেটওয়ার্কের সুবিধে পাওয়া যাবে। এও শোনা গেছে যে বাকি দুটি কম রেঞ্জের ফোনে থাকবে সাব-৬জিএইচজেড ৫ জি কানেক্টিভিটি কিন্তু বাকি দামি মডেলে পাওয়া যাবে এমএমওয়েভ ৫জি।  বলাই বাহুল্য আগেরগুলোর থেকে নতুন সিরিজের দাম বেশি হবে।  বিখ্যাত ফোন বিশেষজ্ঞ মিঙ্গ-চি কুও মনে করেন যে ৫জি সম্পর্কিত উপাদানগুলোর জন্য এমনিতে ডিভাইসের দাম বেড়ে যায়, কিন্তু নতুন আইফোনগুলোর দাম কেবলমাত্র ৫জি থাকবে বলেই বেশি হবে না।