আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দিন। এরপরেই বাঙালির বহু প্রতিক্ষীত উৎসব দুর্গা পুজার সূচণা। অন্যান্য বছরের তুলনায় এই বছরের পরিস্থিতি আলাদা, তাই বাড়িতেই পুজোর জন্য মেকওভার শুরু করেছেন অনেকেই। ফেসিয়াল থেকে স্মুদনিং সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে সব কিছুই হচ্ছে বাড়িতে। তাই এই সবের মধ্যে শুধু ওয়াক্সিং-এর জন্য পার্লারে যাওয়া কেন। এটাওতো সহজেই বাড়িতেই করে নেওয়া যায়। 

অবাঞ্ছিত লোমের সমস্যা থাকে অনেকেরই। হরমোনাল সমস্যা থাকলে অনেক ক্ষেত্রেই এই অবাঞ্ছিত লোমের সমস্যা দেখতে পাওয়া যায়। বিশেষ করে কোনও মহিলার মুখে অবাঞ্ছিত লোম স্বাভাবিক সৌন্দর্য নষ্ট করে দেয়। হরমোনের ভারসাম্যতার জন্যই প্রধাণত এই ধরনের সমস্যা বেশি দেখা দেয়। পার্লারে গিয়ে থ্রেডিং করানোটাই এই সমস্যার সমাধান নয়। সবার ত্বকে সমান হয় না, তাই অনেক সময়েই থ্রেডিং করতে গিয়ে সমস্যায় পড়তে হয় অনেককে। সাময়িকভাবে মুক্তি পাওয়া গেলেও ধীরে ধীরে এই সমস্যা বাড়তে থাকে। তবে ঘরোয়া কিছু সহজলভ্য উপাদানের সাহয্যে সহজেই বানিয়ে নিতে পারেন ওয়্যাস্ক। এই উপায়ে কেমিক্যালের সমস্যা থেকেও মুক্তি পাবেন। বাড়িতে ওয়্যাক্স বানাবেন কীভাবে জেনে নেওয়া যাক-

একটি পাত্রে দুই কাপ চিনি নিন, একটি গোটা পাতি লেবুর রস, সামান্য জল, কয়েক ফোঁটা এসেনসিয়াল ওয়েল বা টি ট্রি ওয়েল একসঙ্গে নিয়ে গরম করুন। যতক্ষণ না চিনি গলে যাচ্ছে নাড়তে থাকুন। এরপর এতে মধু দিয়ে ফুটতে দিন। মিশ্রণটি ঘন হয়ে এলে গ্যাস থেকে নামিয়ে মিশ্রণটি ঠাণ্ডা করে নিন। ওয়াক্স তৈরি হয়ে যাওয়ার পর একটি চ্যাপটা কাঠের চামচের সাহায্যে তা হাতে বা পায়ের লোমের ওপর লাগান। মোটা কাপড় বা ওয়াক্স স্ট্রিপ দিয়ে ওয়াক্স লাগানো জায়গাটি ঢেকে দিন। লোমের বৃদ্ধির উল্টো দিক করে টানুন। ওয়াক্স করা হয়ে গেলে ত্বকের উপর হালকা করে টোনার বা ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। পেয়ে যাবেন পার্লারের মতো পারফেক্ট ওয়াক্স করা জেল্লাদার ত্বক।