করোনা আবহে এই অতিমারী পরিস্থিতির মধ্যে ৬৭ তম বর্ষে পা দিল সুরুচি সংঘ সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটি। তবে এবারের দুর্গাপুজো অন্যান্য বারের মত জাঁকজমক পূর্ণ নয়। তাদের এবারের থিম (ভাবনা) "এবার উৎসব নয় হোক, মানুষের পুজো"। সুরুচি সংঘ সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির সভাপতি তথা রাজ্যের ক্রীড়া মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস জানান তার বিশ্বাস মা এবার দোলায় আসছেন, শাস্ত্র মতে মাহামারি যা বর্তমানে অব্যাহত রয়েছে। যেটা সুসংবাদ মা ফিরছেন গজে যা শাস্ত্র মতে সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধির শস্যশ্যামলায় ভরপুর হয়ে উঠবে। 

তিনি আরও বলেন তার বিশ্বাস মা দুর্গা হচ্ছেন দুর্গতিনাশিনী দুর্গা তিনি এলেই করোনা নামক দুর্গতি দূর হবেই। এর পাশাপাশি তিনি জানান অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে জারা ভ্যাক্সিন তৈরি করছেন তাদের মধ্যে অন্যতম সদস্যা চন্দ্রাবলী দত্তকে তারা আহ্বান জানিয়েছেন আজকের এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ।

এবারের থিম "মানুষের পুজোয়" এই নতুন প্রয়াসে পুজোর মূল বাজেটের ৭০ শতাংশ ব্যয় করা হচ্ছে সমাজসেবামূলক কাজে। এবং ১০ হাজার  ১৫৫ জন ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের জামাকাপড় তাঁদের বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে আসা হবে বলে জানান মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। এছারাও ডেকোরেটার্স, ইলেকট্রিকসিয়ান এবং ঢাকিদেরকেও সাহায্য করা হবে।