আমাদের অনেকেরই ধারণা, অ্য়াসপিরিন নাকি হার্টের রোগ ঠেকাতে পারে ম্য়াজিকের মতো।  কিন্তু এই তথ্য় আজকের দিনে কতটা গ্রহণযোগ্য়?  বিষয়টা কি আদৌ  তাই নাকি পুরোটাই ভিত্তিহীন? আসুন জেনে নেওয়া যাক।

গত শতাব্দীর সত্তর দশকে আমরা জানতে পারলাম যে, ধমনীর দেওয়ালে মধ্য়ে রক্ত জমাট বাঁধা আটকাতে কার্যকরী ভূমিকা নেয় অ্য়াসপিরিন। এর এক দশক পর, আশির দশকের শেষের দিকে জানা গেল, অল্পমাত্রার অ্য়াসপিরিন হার্ট অ্য়াটাকে মৃত্য়ুর হাত থেকে বাঁচাতে পারে। তাই তখন থ্রম্বোসিস বা ব্রেন স্ট্রোকে অ্য়াসপিরিনের প্রয়োগ শুরু করলেন ডাক্তাররা। বলে রাখা ভাল, একবার হার্ট অ্য়াটাক বা ব্রেন স্ট্রোক হলে তা আবার হওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয়। আর এই দ্বিতীয়বার ফিরে আসা ঠেকাতেই তখন শুরু হল অ্য়াসপিরিনের ব্য়বহার। শুধু তাই নয়। এই সময়ের আশপাশে, হার্ট অ্য়াটাক বা স্ট্রোক হওয়ার আগে তা প্রতিরোধের জন্য়ও শুরু হল অ্য়াসপিরিনের ব্য়বহার।

এরপরেই গল্পটা পাল্টাতে শুরু করল একটু একটু করে। বেশ কয়েক দশক পর, ২০১৮ সালে প্রকাশিত হল তিনটি গবেষণাপত্র। একটি ল্য়ানসেটে ও অন্য়দুটি নিউ ইংল্য়ান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে। এই গবেষণা কার্যত অ্য়াসপিরিন ব্য়বহারের ক্ষেত্রে বিশ্বাসের ভিতই নড়িয়ে দিল। কী দেখা  গেল এই গবেষণাগুলোতে? এক-এক করে আসি।

আগে জানা গিয়েছিল, অল্প  হলেও অ্য়াসপিরিন মৃত্য়ুহার কমাতে পারে। কিন্তু এখন এখন আর সেকথা খুব জোর গলায় বলা সম্ভব হল না। তাই নির্বিচারে অ্য়াসপিরিনের পক্ষে আর সায় দিলেন না ডাক্তাররা। অবশ্য় অ্য়াসপিরিনকে একেবারে ফেলে দিতেও পারলেন না কেউ। কারণ, দেখা গেল, হার্ট অ্য়াটাকে মৃত্য়ু হয়নি, সেই ক্ষেত্রে অ্য়াসপিরিনের কিছুটা হলেও ভূমিকা রয়েছে। যদিও সত্তরবছরের নিচে। কারণ, ,সত্তর পেরিয়ে গেলেও দেখা যাচ্ছে, উপকারের চেয়ে অপকার বেশি হচ্ছে। সত্তরোধ্বদের রক্তপাতের ঝুঁকি বাড়ে অ্য়াসপিরিন খেলে।

অতএব, মোদ্দা কথা হল, খেয়াল খুশি মতো আর অ্য়াসপিরিন খাওয়া বুদ্ধিমানের কাজ নয়। অবশ্য় তারমানে এই নয় যে, আপনার চিকিৎসক আপনাকে  প্রয়োজনের অ্য়াসপিরিন দিলেও তা আপনি বয়কট করবেন। ডাক্তারের ওপরেই ছেড়ে দিন পুরো বিষয়টা। আর সেইসঙ্গে শুধু এটুকুই মনে রাখা যে, সত্তরোর্ধ্বদের হার্ট অ্য়াটাক না-হয়ে থাকলে তাদের অ্য়াসপিরিন না-দেওয়াই ভাল। তবে অপেক্ষাকৃত কমবয়সিদের ক্ষেত্রে ব্য়াপারটা অন্য়। একটু অল্পবয়সিদের মধ্য়ে যাদের হার্ট অ্য়াটাকের ঝুঁকি বেশি আর একইসঙ্গে রক্তপাত বা রক্তক্ষরণের ঝুঁকি কম, তাদেরকে হার্ট অ্য়াটাক আটকানোর জন্য় অ্য়াসপিরিন দেওয়াই যেতে পারে।