আজ মহাশিবরাত্রি।  সারা দেশে হিন্দু উৎসবের মধ্যে অন্যতম উৎসব হল শিবরাত্রি। আর আজ হল সেই বিশেষ দিন।  আজকের দিনে এই শিবরাত্রি পালনের জন্য সারাবছর ধরে সকলে মুখিয়ে থাকে। এই দিনে ভক্তরা মন্দিরে দিয়ে শিবলিঙ্গকে দুধ, গঙ্গাজল দিয়ে ভাল করে স্নান করিয়ে ফুল , ফল দিয়ে অর্ঘ্য জান করে থাকেন। উপোস করে সারা রাত জেগে প্রহরে প্রহরে জল ঢালা, নানা আচার অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই মহা শিবরাত্রি ধুমধাম করে পালন করা হয়।

আরও পড়ুন-শরীর দুর্বল, একটি মাত্র শাকেই হবে সমস্যার সমাধান...

পুজোর সময়সূচী

তারিখ-২১.০২.২০২০
সময়- বেলা ১২.০৯ থেকে রাত ১.০০টা পর্যন্ত।

পারণের সময়সূচী

তারিখ-২২.০২.২০২০
সময়- সকাল ৯ টা ৫৬ মিনিট

যারা শিবরাত্রি ব্রত করেন  তারা অবশ্যই এই পারণ করে থাকেন। এইদিন মহাদেবকে অন্ন নিবেদন করে পারণ মন্ত্র উচ্চারণ করে উপোস ভঙ্গ করতে হয়।

আরও পড়ুন-ঠান্ডার থেকে শিশুকে কীভাবে সুরক্ষিত রাখবেন, জেনে নিন ঘরোয়া টিপস...

শিবরাত্রির পারণ মন্ত্র

'সংসার ক্লেশদগ্ধস্য ব্রতেনানেন শঙ্কর।
প্রসীদ সুমুখনাথ জ্ঞানদৃষ্টি প্রদোভব।।'

 

 

শিবরাত্রি পুজোর জন্য কী কী প্রয়োজন

অনেকেই আছেন যারা এই শিবরাত্রির দিন বাড়িতে পুজো করেন থাকেন। তারা বিশেষ করে এটি জেনে রাখুন। শিবরাত্রি পুজোর জন্য একটি শিবলিঙ্গ, ছোট ঘটি, জল, দুধ, থালা, কোশাকুশি, গ্লাস, সাদা চন্দন, আতপ চাল, ফুল, বেলপাতা, ফল, ধূপকাঠি, প্রদীপ, নৈবেদ্য , জল, প্রণামী। এটা কটি জিনিস থাকলে মহাশিবরাত্রির পুজো আপনি বাড়িতে বসেই করতে পারবেন।

আরও পড়ুন-ঘুমোতে যাওয়ার আগে মাথার নীচে এক টুকরো লেবু রাখুন, আর নিজে ম্যাজিকটা দেখুন...


শিবরাত্রির উপবাসের সময় কী করা উচিত

উপবাসের দিন নির্জলা ব্রত করবেন।

উপোস না ভাঙা পর্যন্ত জল না খাওয়াই ভাল।

যারা নির্জলা উপোস করতে পারেন না তারা যে কোনও সরবত খেতে পারেন ব্রাহ্মণের অনুমতি নিয়ে।

পুজোর শেষে ফলাহার করুন। রাতে নিরামিষ হালকা খাবার খান।

পারণের দিন দুবার খাওয়ার, ভারী কাজ, পরের অন্ন ভোজন, দূরে যাত্রা না করাই ভাল।