বাঁধাকপি এমনই একটা সব্জি যা শুধু শীতকালেই নয়, বরং সারাবছরই কমবেশি পাওয়া যায়। এটি খেতেও যেমন সুস্বাদু তেমনই এর গুনও রয়েছে অনেক। রান্নার পাশাপাশি অনেক গুনও রয়েছে বাঁধাকপির। আমাদের এখানে বাঁধাকপি শুধু সবুজ রঙের পাওয়া যায়। কিন্তু বাইরের দেশে বেগুনি, হালকা সবুজ রঙেরও বাঁধাকপি মেলে। খুবই জনপ্রিয় এই সব্জিটি পুষ্টিগুণে ভরপুর। তবে ইদানিংকালে বেগুনী রঙের বাঁধাকপিও যে কোনও স্টোরেই পাওয়া যায়। স্বাদে ও পুষ্টিগুণে ভরপুর বাঁধাকপির নানান উপকারিতা রয়েছে, তার পাশাপাশি রয়েছে নানা রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা। স্বাস্থ্যের জন্য কতটা উপকারী বাঁধাকপি জেনে নিন এখনই।

 

বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম,ফসফরাস, সোডিয়াম,রয়েছে যা হাড়ের বিভিন্ন সমস্যা দূর করে।নিয়মিত বাঁধাকপি খেলে ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ে না।শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় প্রায় সব ধরনের ভিটামিন রয়েছে বাঁধাকপিতে। তাই বাঁধাকপি খেলে ভিটামিনের অভাবজনিত রোগ থেকে দূরে থাকা যাবে।বাঁধাকপি পাকস্থলির ক্যানসার ও পেপটিক আলসারে বিশেষ ভাবে কাজ করে। রোগ প্রতিরোধ বাড়াতে সাহায্য করে এই বাঁধাকপি। বাঁধাকপিতে উপস্থিত ভিটামিন সি, মিনারেল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে।

 

 

চোখে মুখে বয়সের ছাপ ক্রমশ ফুঁটে উঠছে। যা না বয়স তার থেকেই যেন বেশি মনে হচ্ছে। সেই সমস্যার সমাধান করতে নিয়মিত বাঁধাকপি খান। বার্ধক্যজনিত সমস্যা থেকে অনায়াসেই মুক্তি পাওয়া যাবে নিয়মিত বাধাকপি খেলে। শুধু তাই নয়,  ওজন কমাতে সাহায্য করেবাঁধাকপি। বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে খাদ্যআঁশ রয়েছে । যারা ওজন কমাতে চান তারা নিয়মিত খাদ্যতালিকায় বাঁধাকপি রাখুন। স্যালাডে বাঁধাকপি রাখুন। এতে ক্যালরি বাড়ে না।এছাড়াও বাঁধাকপি আলসার নিরাময়ে সহায়ক।

 

 

আলসার হলে প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় বাঁধাকপির রস খান। বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি রয়েছে। যা ত্বকের নানা সমস্যা দূর করে। এছাড়াও প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। যা ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে। সুতরাং একটা সব্জিতেই যদি এতগুলো রোগ নিরাময় করা সম্ভব হয়, তাহলে খেতে ক্ষতি কি।  যারা যেই সমস্যায় ভুগছেন,নিজেদের সমস্যা মতো সব্জিটি বেছে নিন।