কয়েক দিন পরেই রাখি৷ বিশেষ এই দিনটাই সমস্ত ঝগড়া, খুনসুটি ভুলে ভাই-বোনের সম্পর্কের মধুর দিকটাই গুরুত্ব পায়৷ প্রত্যেক বছর পুজোর আগেই শ্রাবণ মাসে পালিত হয় রাখি বন্ধন উৎসব। রাখি মানেই রক্ষা বন্ধন উৎসব। রক্ষা বন্ধন উৎসবে ভাই-বোন কে রক্ষার প্রতিশ্রুতি এবং বোন ভাইয়ের কল্যাণ কামনায় প্রার্থনা করে থাকেন। বঙ্গভঙ্গ বিরোধী আন্দোলনের রদ করতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, বাঙালির ঐক্যের দিন হিসেবে একে অপরের হাতে হলুদ সুতো বেঁধে উদযাপিত করা হয় দিনটিকে। তারপর থেকেই এই বিশেষ দিনটিকে রাখি বন্ধনের দিন হিসেবে পালন করার ডাক দেন বিশ্বকবি। 
এই রাখি বন্ধন উৎসব মূলত ভাই ও বোনের বন্ধন ও একে অপরের প্রতি আরও দায়বদ্ধ হওয়ার দিন। ২০১৯ সালের রাখি উৎসব পালিত হবে ২৯ শ্রাবণ ১৪২৬, বৃহস্পতিবার। ইংরেজি তারিখ অনুযায়ী ১৫ অগাষ্ট। স্বাধীনতা দিবসের দিন এই উৎসব পালিত হতে চলেছে। সেই দিন সকালেই রাখী বন্ধনের রীতিনিতি পালিত হবে। বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকা মতে পূর্ণিমা তিথি পড়ছে ১৪ অগাস্ট বিকেল ৩:৪৫ মিনিটে। আর পূর্ণিমা তিথি ছাড়ছে ১৫ অগাস্ট বিকেল ৫:৫৯ মিনিটে। ভোর ৫টা ১৭ মিনিট থেকে বিকেল ৫টা ৫৯ মিনিট অবধি রাখি বন্ধনের জন্য শুভ সময়। গুপ্তপ্রেস পঞ্জিকা মতে ভোর ৫টা ১৪ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড থেকে বিকেল ৪টা ৩৭ মিনিট অবধি শুভ সময়।