ইতিমধ্যেই কলকাতায় ডেঙ্গুর প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। কলকাতা পৌরসভার স্বাস্থ্য দফতরে ইতিমধ্যেই ৭৫ জনের ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ার খবর নথিভুক্ত করা হয়েছে।  আর এই কারণে শহরে ডেঙ্গু মোকাবিলার জন্য কলকাতা পৌরসভা রাজ্যের সাহায্য প্রার্থনা করেছে।  

যদিও এখনও পর্যন্ত বরো স্বাস্থ্য দফতরে ডেঙ্গু আক্রান্ত কোনও রোগীর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। কিন্তু ডেঙ্গু প্রবণ এলাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপ খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে এই আশঙ্কা একেবারেই উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।পৌরসভার স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, কলকাতা পৌরসভার যে ডেঙ্গু-বিরোধী প্রচারাভিযান চালু রয়েছে তার অনুপস্থিতিতে শহরে ডেঙ্গু একটা মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারত। এই ব্যাপারে  কলকাতার পৌরসভা স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের কাছে সাহায্য় চেয়ে একটি রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে, যেখানে বলা হয়েছে যে, কলকাতা পৌরসভার ৫টি বরোর অধীনে একটা বড় অংশ জুড়ে ডেঙ্গু থাবা বসাতে পারে। আর সেই কারণেই বর্ষা শুরুর আগেই ডেঙ্গু প্রতিরোধে রাজ্যের সাহায্য প্রার্থনা করছে কলকাতা পৌরসভা,যাতে একজোট হয়ে ডেঙ্গু  প্রতিরোধ করা যেতে পারে। 

কীটনাশক ব্যবহার করার আগে কেন দুবার ভাববেন

এখনও পর্যন্ত কলকাতার যে যে এলাকাগুলিকে ডেঙ্গুপ্রবণ এলাকা বলে চিহ্নিত করা হয়েছে, সেগুলি হল- তালতলা, এলিয়ট রোড, পার্ক সার্কাস, তিলজলা, বালিগঞ্জ, লেক গার্ডেন্স, যোধপুর পার্ক, আলিপুর, বেহালা, টালিগঞ্জ, গড়িয়া, বিজয়গড়, বাঘা যতীন, যাদবপুর এবং ই এম বাইপাসের বেশকিছু এলাকা। কলকাতা পৌরসভার স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে  আরও বলা হয়েছে যে, এর মধ্যে বেশিরভাগ এলাকায় গত বছরে ডেঙ্গুর প্রদুর্ভাব দেখা গিয়েছিল, অনেক মানুষের মৃত্যুও হয়েছিল। এই প্রসঙ্গে কলকাতা পৌরসভার একাধিক পৌর প্রতিনিধিরা একথা স্বীকার করেছেন যে, যথাযথ ব্যবস্থা নিলে এই বছর ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে রাখা যেতে পারে।