অপো সর্বদা সুন্দর ডিজাইন ও দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের ভারসাম্য ঘটিয়ে এমন সব ফোন নির্মাণ করে যাতে তাদের সংস্থার সুনাম বজায় থাকে ক্রেতার কাছে। রেনো সিরিজ তো অবশ্যই সুনামের হকদার। গত বাছর আমরা দেখেছিলাম রেনো ১০এক্স জুম ও রেনো২। এই বছর এসেছে নতুন সিরিজ অপো রেনো৩ প্রো। তিরিশ হাজারের মধ্যে দাম, তাই অনেক প্রত্যাশা নতুন সেটটি নিয়ে।
অবশ্যই এটি যেহেতু অপো ব্র্যান্ডের তাই ডিজাইন একেবারে প্রিমিয়াম পর্যায়ের। অরোরা ব্লু, মিডনাইট ব্ল্যাক আর স্কাই হোয়াইট এই তিনটি সুন্দর রঙে পাওয়া যাবে এই ফোনটি। স্ক্রিনের আয়তন ৬.৪ ইঞ্চি সঙ্গে সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে যাতে থাকবে ১২০০ নিটস পিক ব্রাইটনেস। এর ফলে খুব জোরালো সূর্যের আলোতেও পরিষ্কার দেখা যাবে ডিসপ্লে। ডুয়াল পাঞ্চ হোলের মধ্যে অবস্থিত ফ্রন্ট ক্যামেরা যার ফলে ক্যামেরা ভিউ বাধা প্রাপ্ত হয় না মোটেই।  তার তলায় রয়েছে ফিংগারপ্রিন্ট স্ক্যানার যা শুধু দ্রুতই নয়, হার্ডওয়্যার-বেসড ফ্রড ডিটেকশন ধরতে পারে জালিয়াতি।  এতকিছু সব অসাধারণ ফিচারস যে কাঠামোর মধ্যে বিন্যস্ত তার ওজন মাত্র ১৭৫ গ্রাম আর ফ্রেমের আয়তন ১৫৮.৮ এমএম * ৭৩.৪ এমএম।
এই ফোনে রয়েছে বিশ্বের প্রথম মিডিয়াটেক হেলিও পি৯৫ প্রসেসর, একটি এআই প্রসেসিং ইঞ্জিন। এছাড়া ৮জিবি র‍্যাম, ১২৮ ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ। ভারী গেম খেললেও ফোন স্লো হওয়ার সুযোগ থাকছে না। তাছাড়াও হাইপার বুস্ট মোড রয়েছে যাতে গেম খেলার অভিজ্ঞতা আরও সুখদায়ক হয়। অসাধারণ ডিসপ্লের জন্য সবকিছুই অসাধারণ হয়ে যায়। অনেকগুলো ট্যাব একসঙ্গে খুলে রেখে কাজ করা যায় এই ফোনে সহজেই। মেল, সোশ্যাল মিডিয়া, ভিডিও এডিটিং সবকিছু করা যায় একইসঙ্গে। ৪০২৫ এমএওএইচ ব্যাটারি, ৩০ ডব্লু চার্জার দ্রুততার সঙ্গে ও নিরপদে চার্জ দেয়। এই ফোন বারবার চার্জ দিতে হয়ও না।
এই ফোনের ক্যামেরা নিয়ে কোনও কথাই হবে না। দুর্ধর্ষ পারফরম্যান্স। চারটে ক্যামেরা রয়েছে, ৬৪ মেগাপিক্সেল মেন সেন্সর, ১৩ মেগাপিক্সেল টেলিফটো লেন্স, একটি ৮ মেগাপিক্সেল আলট্রা-ওয়াইড লেন্স এবং একটি ২ মেগাপিক্সেল মেন সেন্সর আর ২ মেগাপিক্সেল ডেপথ সেন্সর। সবকটি ক্যামেরার পারফরম্যান্স দারুণ। কম আলোয় খুব ভালো ছবি হয় এবং বিশেষ আলট্রা নাইট মোড রয়েছে তাই কম আলোয় নিশ্চিন্তে ছবি তোলা যায়।

ফিচার -রিচ ইউ আই, কলার ওএস ৭ রয়েছে যা পারফরমন্স ভালো করে ফোনের। লেটেস্ট উন্নতমানের অ্যান্ড্রয়েড ভার্সান ফোনটির কার্যকারিতা বাড়িয়ে দেয়। তিরিশ হাজার দামে এত কিছু বৈশিষ্ট্যসহ ফোনটি ক্রেতার কাছে সমাদর পাবে বলেই মনে করা হচ্ছে।