অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে স্যামসাঙ এখনও স্বমহিমায় বিরাজমান। বেশি দামের ও কম দামের দু ধরণের স্মার্টফোনের বাজারে স্যামসাং ভারসাম্য বজায় রেখে নতুন নতুন মডেল নিয়ে আসছে এই দেশে। স্যামসাঙ গ্যালাক্সি এস ১০ লাইট লঞ্চ করেছে স্যামসাঙ এবং আশা করা হচ্ছে যে ওয়ান প্লাস -এর সঙ্গে এই সেগমেন্টে ভালোই প্রতিদ্বন্দিতা হবে গ্যালাক্সি এস১০ লাইট-এর। এই ফোনের দাম শুরু হচ্ছে ৩৯,০০০টাকা থেকে।

এই ফোনের বিশেষ বৈশিষ্ট্য কিরকম-

ডিজাইনের ক্ষেত্রে যেমনটা মানুষের চাহিদা তেমনই গ্যালাক্সি এস১০ লাইট। ৬.৭ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেডপ্লাস প্যানেল। সম্পূর্ণ এইচডিপ্লাস (১০৮০*২৪০০) রেসোলিউশন। এইচডিওয়ার১০ প্লাস সাপোর্ট থাকবে, গোরিলা গ্লাস প্রোটেকশন থাকবে।বৃত্তাকার হোল-পাঞ্চ কাট আউট থাকছে স্ক্রিনের ওপরে ডান দিকে। সরু ফ্রেম এই ফোনের ডিজাইনকে স্লিম করেছে। রংগুলো বেশ আকর্ষণীয় ও উজ্জ্বল। উজ্বল প্লাস্টিক প্যানেল দেখলে মনে হবে গ্লাস। ফোনের পিছনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং স্মাজড ম্যাগ্নেট আছে।  
এই ফোনে হাইব্রিড ডুয়াল স্লিম ট্রে থাকবে যেখানে ন্যানো সিম কার্ড, মাইক্রোএসডি কার্ড থাকবে। গ্যালাক্সি এস১০ লাইট ফোনে হেডফোন সকেট নেই। নীচে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট এবং সিঙ্গল স্পিকার থাকবে।
 গ্লাস বা অ্যালুমিনিয়ামের ব্যবহার না থাকায় এই ফোন বেশ হালকা এবং ধরার ক্ষেত্রে অসুবিধে হয় না। এমন বড়ো ডিস্প্লে ও ব্যাটারি সমেত ফোনের ওজন মাত্র ১৮৬ গ্রাম। 
গ্যালাক্সি এস১০ লাইট ফোনে আছে কোয়ালকাম স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ এসওসি । একবছরের পুরনো হলেও এই প্রসেসর খুবই কার্যকরী। তবে ভবিষ্যতে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্লাস প্রসেসর হলে এই ফোনের আকর্ষণ বাড়বে বই কমবে না। 
ভারতে লঞ্চ হয়েছে কেবলমাত্র গ্যালাক্সি এস১০ লাইটের ৮জিবি র‍্যাম এবং ১২জিবি স্টোরেজ।  এই ফোনের অন্যান্য বৈশিষ্ট্যের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল-  ডুয়াল-ব্যান্ড ওয়াই ফাই এসি, ব্লুটুথ ৫, চারটি স্যাটেলাইট নেভিগেশন সিস্টেমের জন্য সাপোর্ট , এফ এম রেডিও এবং এনএফসি। শেষের ফিচারটি সাহায্য করবে ব্যবহারকারীকে স্যামসাং পে-এর মাধ্যমে কনট্যাক্টলেস পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে। সব ধরণের সেন্সর যা প্রত্যাশা করে ব্যবহারকারীরা সব আছে এই ফোনে। তাছাড়া এই ফোনে থাকছে ওয়াইডভাইন এল ১ ডিআরএম সার্টিফিকেশন। এই ফোনে ৪৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি থাকছে যা নিশ্চিন্তে দুইদিন পর্যন্ত চলে বিনা চার্জে। 
এই ফোনে ওয়ান ইউআই ২.০ অ্যান্ড্রয়েড ১০ থাকছে। থাকছে জানুয়ারি ২০২০ সিকিউরিটি প্যাচ। গ্যালাক্সি এ৫১-এর মতো এই ফোনের স্কিনও ঝকঝকে। 'লিঙ্ক টু উইন্ডো' ফিচার থাকছে এই ফোনের যার মাধ্যমে উইন্ডো১০ কম্পিউটারে মেসেজ পড়া যাবে এবং নোটিফিকেশন দেখা যাবে। ঠিক যেমন গ্যালাক্সি নোট ১০ প্লাস-এ ছিল। তাছাড়াও ইন-বিল্ট স্ক্রিন রেকর্ডার, মাল্টিপল মোশন  জেসচার, ওয়ান-হ্যান্ড মোড এবং গেম লঞ্চার থাকছে  সব গেমগুলোকে এক জায়গায় নিয়ে আসার জন্য। তবে এই ফোনে গ্যালাক্সি এ৫১-এর মতো ভারতের জন্যই নির্মিত সেইসব অনন্য বৈশিষ্ট্যগুলো যথা, মেসেজঅ্যাপ, কিবোর্ডে মাল্টিলিংগুয়াল প্রেডিকশন প্রভৃতি নেই। 
গ্যালাক্সি এস১০ লাইটে থাকছে তিনটি রিয়ার ক্যামেরা এবং একটি ফ্রন্ট ক্যামেরা। ৪৮ মেগাপিক্সেল সেন্সর, ১২ মেগাপিক্সেল ওয়াইড-অ্যাঙ্গল ক্যামেরা এবং ৫ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ক্যামেরা। সেলফি ক্যামেরায় ৩২ মেগাপিক্সেল সেন্সর।