দুর্গা পুজোর একটা লম্বা খরচের পর কালী পুজো আসে। আর কালীপুজোর আগের দিনই পালিত হয় ধনতেরস। তাই সংসারের আর্থিক স্বাচ্ছল্য়র জন্য় অনেকেই ধনতেরসে সোনা-রুপো কিনে দেবী লক্ষ্মীকে তাদের ঘরে  আহ্বান জানান । হিন্দু শাস্ত্র মতে এইদিনই ভগবান বিষ্ণু, দেবী লক্ষ্মীকে  শক্তি সঞ্চার করেন। আর সেই শক্তি দেবী লক্ষ্মী, আমাদের মধ্য়ে  ছড়িয়ে দেন। অনেকের মতে, ধনতেরস কথাটি এসেছে ধনওয়ানতারি ত্রয়োদশী থেকে। 

ধনত্রয়োদশীর দিন দেবী লক্ষ্মী সমুদ্র মন্থনের সময় দুধের সমুদ্র থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন। তাই ত্রয়োদশীর দিনে দেবী লক্ষ্মীর পূজা হয়।  শাস্ত্র মতানুসারে, দেবগণ ও অসুররা যখন সমুদ্র মন্ত্রটি উচ্চারন করছিলেন এবং ধনতন্ত্রীরা ধনতেরাসের দিনে অমৃতের পাত্রটি বহন করেছিলেন।

ঐতিহ্যগতভাবে, ধনতেরাসে সোনা-রুপো কেনা হয়, বিশেষত মূল্যবান ধাতু কেনার জন্য এটি একটি শুভ দিন হিসাবে বিবেচিত হয়। উল্লেখযোগ্যভাবে অনেকের বাড়িতেই সোনার তৈরি গৃহ দেবতা শায়িত থাকে। ভারতীয় পরিবারগুলি ঘরে সোনা রাখে, কারণ এটি সময়ের সঙ্গে পরিবারগুলির ভাগ্য় বদলাতে থাকে। তাদের জেনে রাখা উচিত যে এতে একটি অর্থোপার্জনের সুযোগ হতে পারে।

এই বছর ধনতেরাস ভারতে পাশাপাশি বিদেশেও মানুষ ২৫ অক্টোবর (শুক্রবার) উদযাপিত হবে। সন্ধ্যা ৭:০৮ টা থেকে সন্ধ্যা 8:২২ অবধি পূজা অনুষ্ঠিত হবে। পুজোর পুরো সময়কাল ১ঘন্টা ১৪ মিনিট হবে।