কোভিড১৯ বা মারণ করোনা ভাইরাস প্রতি মুহূর্তে কেড়ে চলেছে মানুষের জীবন। এই মহামারি বিশ্বজুড়ে সৃষ্টি করেছে আতঙ্কের। কত মানুষ তার পরিজনদের হারিয়েছে বা আরও হারাবেন তার কোনও হিসেব নেই। বিশ্ব জুড়ে এক বিপর্যয়ে সৃষ্টি করেছে কোভিড১৯। এই রোগের চিকিৎসার ধরণ অনুযারী আক্রান্ত ব্যক্তি যদি মারা যান, তবে তাঁর দেহ আর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয় না, এতে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকে। সরকারি উদ্যোগেই মৃতদেহগুলির সৎকার করা হয়।

এমন এক পরিস্থিতিতে পরিবারের লোকেরা বা কাছের মানুষগুলোও বাবা-মা বা অন্যান্য আত্মীয়দের সঙ্গে শেষবারের মতো দেখতে পারছে না। এমনই একটি হৃদয় বিদারক ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ছবিটি ফিলিস্তিনের একটি হাসপাতালের। সেখানে হাসপাতালের খুব উঁচু এক জানলায় বসে আছেন এক যুবক। তাঁর মা হাসপাতালের ওই ঘরেই কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে শেষ লড়াই লড়ছেন। মা-কে শেষ বারের মত এক ঝলক দেখার জন্য, তিনি ওই জানলায় বসে রয়েছেন।

<

 

 

 

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় রাতারাতি ভাইরাল হয় এই ছবি। ভাইরাল হওয়া এই ছবিতে বলা হচ্ছে যে ব্যক্তিকে দেখা হচ্ছে তার নাম জিহাদ আল-সুয়েতী। তিনি পশ্চিমের বাইত আওয়া শহরের বাসিন্দা। জিহাদের মা, ৭৩বছর বয়সী রশ্মী সুবতী, হেবরন স্টেট হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। করোনা সংক্রমণের জন্য তার চিকিৎসা চলছে। শেষ অবধি বৃহস্পতিবার মৃত্যু হয় তাঁর। ৩০ বছর বয়সী জিহাদ প্রতিদিন এই জানলার বাইরে মায়ের এক ঝলকের জন্য বসে থাকতেন।মারা যান। এই ছবিটি প্রথম সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন মোহাম্মদ সাফা নামে একজন মানবাধিকার কর্মী। এই হৃদয় বিদারক ছবি নজর কেড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।