বাঙালির রবিবার মানেই মাং। সে চিকেন হকো বা মাটন মাংস না হলে বাঙালির রবিবার সম্পূর্ণ হয় না। চিকিৎসকরা সব সময়েই রোগীদের রেড মিট না খাওয়ার পরামর্শ দেন।  কিন্তু অসুস্থতায় চিকেন স্ট্যু হয়ে ওঠে রোগীর পথ্য। কিন্তু নতুন এক গবেষণায় ধরা পড়েছে, চিকেন ও মাটন দুটোই শরীরের পক্ষে সমান ক্ষতিকারক। 

কোলেস্টেরলের রোগীদের মাটন খাওয়ার উপরে অনেক বাধা নিষেধ রয়েছে। কিন্তু চিকেনও একই ভাবে কোলেস্টেরলের রোগীদের জন্য ক্ষতিকারক বলে জানা। এই  গবেষণার রিপোর্টটি প্রকাশ পায় আমেরিকান জার্নাল অফ ক্লিনিকাল নিউট্রিশনে। ক্যালিফর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানাচ্ছেন, এতদিন এটাই  প্রচলিত ছিল রেড মিট হার্টের পক্ষে খারাপ। কিন্তু নতুন গবেষণা বলছে, চিকেনও একই রকম ক্ষতি করতে পারে। 

রক্তে খারাপ কোলেস্টেরল বা লো ডেনসিটি লাইপোপ্রোটিনসের মাত্রা বেড়ে গেলে একটা আর্টারি ব্লক হয়ে যেতে পারে। তখনই হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কয়েক গুণ বেড়ে যায়।  প্রাণীজ খাবার যেমন মাটন, বিফ, পর্ক, বাটার খেলে কোলেস্টেরলের মাত্রা কয়েক গুণ বেড়ে যায়। এতদিন চিকেনকে এই তালিকার বাইরেই রাখা হতো। কিন্তু নতুন গবেষণা বলছে চিকেন খেলে একই রকম সমস্যায় পড়তে হতে পারে। 

২১ থেকে ৬৫ বছরের ১০০ জনের উপরে সমীক্ষা চালান ক্যালিফর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। তিনটি দলে ভাগ করে দেওয়া হয় ১০০ জনকে। এক দল রেড মিট ডায়েটে, এক দল হোয়াইট মিট ডায়েটে ও আর এক দল নো মিট ডায়েট, অর্থাৎ মাংস ছাড়া খাবার খান। দেখা যায় নো মিট ডায়েটে যারা ছিলেন তাঁদের থেকে রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কম। তুলনামূলক ভাবে যাঁরা রেড মিট ও হোয়াইট মিট- ডায়েটে ছিলেন তাঁদের রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেশি।