Asianet News Bangla

ধর্ষণের অভিযোগ করে যুবককে জেল খাটানো, জামিন পেতেই অপহরণ করে বিয়ের চেষ্টা নাবালিকার

  • জামিন পাওয়া ধর্ষণে অভিযুক্তকে অপহরণ
  • ধর্ষণে অভিযোগকারিণীর বিরুদ্ধে অপহরণের অভিযোগ
  • বাড়ি ফেরার পথে অভিযুক্ত যুবককে অপহরণ
  • পুলিশের তৎপরতায় উদ্ধার জেল ফেরত যুবক, গ্রেফতার তরুণী
     
Aftet released from jail the young man kidnap by teen age girl at Kharagpur ASB.
Author
Kolkata, First Published Aug 20, 2020, 11:05 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

শাজাহান আলি, খড়গপুর - তিন মাস আগে নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে জেল যাত্রা হয়েছিল যুবকের। পকসো আইনে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। সেই ঘটনার তিনমাস পর ধর্ষণে মামলায় জামিন পেয়ে বাড়ি ফেরার পথে আজব কাণ্ড ঘটে গলে পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুরে। জেল ফেরত ওই যুবককে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল খোদ ধর্ষণের অভিযোগকারিণীর নাবালিকার বিরুদ্ধেই। বাবাকে সঙ্গে নিয়ে রাস্তা থেকেই জেল ফেরত যুবককে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ। অবশেষে পুলিশের তৎপরতায় উদ্ধার হয় যুবক। হাতেনাতে গ্রেফতার হয় অপহরণের ষড়যন্ত্রীকারী ওই নাবালিকা ও তার বাবা।


চাঞ্চল্যকর এই ঘটানাটি ঘটেছে খড়গপুরের চৌরঙ্গী মোড়ে। পুলিশ সূত্রে খবর, যুবককে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগে গ্রেফতার ওই নাবালিকা ও তার বাবা খড়গপুর টাউন থানার নিমপুরার বাসিন্দা। জানাগেছে, গত ১৫ মে খড়গপুর গ্রামীণের বাসিন্দা আকাশ চাপরির নামে ধর্ষণের অভিযোগ আনে  নাবালিকা। প্রতিবেশী আকাশ গত তিন বছর ধরে তাকে লাগাতার ধর্ষণ করছে বলে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানায়েছিল সে। এরপরই নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে আকাশ চাপরি নামে ওই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। পকসো আইনে জেল হেফাজত হয় আকাশ চাপরির। মঙ্গলবার জামিনে মুক্তি পায় আকাশ। এদিন বাড়ি ফেরার পথে চৌরঙ্গী মোড়ে তাঁদের গাড়ি আটকায় নাবালিকা সহ তার দলবল। আকাশকে জোর করে নামিয়ে অন্য় গাড়িতে তুলে নিয়ে যায় নাবালিকা। গোটা ঘটনা পুলিশকে জানায় আকাশের বাবা। ৬ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে আকাশকে ওই নাবালিকা নিয়ে যায় পুলিশকে জানায় সে। এরপরই নিমপুরার বাড়ি থেকে নাবালিকার বাবাকে আটক করে পুলিশ। জাতীয় সড়ক থেকে নাবালিকার কাছ থেকে যুবককে উদ্ধার করে পুলিশ।
    
ঘটনায় অপহরণে জড়িত ওই নাবালিকা ও তার বাবাকে টানা জেরার পর গ্রেফতার করে পুলিশ। যুবককে অপহরণের সময় ব্য়বহার করা গাড়িটিকেও বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে তদন্ত শুরু করেছে খড়গপুর টাউন থানা।
 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios