সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর-রাস্তার উপর প্রকাশ্যে এক বিজেপি কর্মীকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। আক্রান্ত ব্যক্তি প্রাক্তন সেনাকর্মী। তিনি বিজেপি দলকে সমর্থন করতেন বলে তাঁকে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা মারধর করত বলে অভিযোগ। ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের পটাশপুর থানার আলমচক বেলদা গ্রামে। জানাগেছে, আক্রান্ত বিজেপি কর্মী অনন্ত মাইতি তাঁর ভাইয়ের বাড়ি থেকে রবিবার ফিরছিলেন। সেসময় তাঁর রাস্তা আটকায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। প্রথম বচসা শুরু হয় পরে বাঁশ, লোহার রড দিয়ে অনন্ত মাইতিকে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। পরিবারের দাবি, প্রাক্তন ওই সেনাকর্মী বিজেপিকে সমর্থন করায় তাঁর উপর হামলা চালিয়েছে তৃণমূল।

পরিবারের অভিযোগ, ঘটনার সময় পুলিশ উপস্থিত থাকলেও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। পুলিশের সামনেই তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁদের উপর বেধড়ক অত্য়াচার চালায়। রাস্তার উপর ফেলে মারধর করলেও পুলিশ নীরব দর্শকের ভূমিকায় ছিল বলে অভিযোগ। ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। গুরুতর জখম অবস্থায় আক্রান্ত অনন্ত মাইতিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

ঘটনার জেরে পটাশপুর এলাকায় শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। যদিও, তৃণমূলের দাবি বৃহস্পতিবার ওই এলাকার বাজারে তৃণমূলের এক কর্মীকে মারধর করেছিল বিজেপি। এদিন যে ঘটনাটি ঘটেছে সেটি বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল। এর সঙ্গে তৃণমূল জড়িত নয়। অন্যদিকে বিজেপির দাবি, এলাকায় অশান্তি, হিংসার বাতাবরণ সৃষ্টি করতে চাইছে তৃণমূল।