সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর: বর্ষার সময়ে ইলিশ ছাড়া আর বাঙালির রসনাতৃপ্তি হয়! আর বেশিদিন অপেক্ষা করতে হবে না। সোমবারই দিঘাতে উঠল সমুদ্রের রুপোলি শস্য। খুব শীঘ্রই বাজারে মিলবে বড় মাপের ইলিশ মাছ।

আরও পড়ুন: মাঝ-নদীতে ট্রলারের ব্যাটারিতে বিস্ফোরণ, বরাতজোরে রক্ষা পেলেন মৎস্যজীবীরা

করোনা সতর্কতায় তখন লকডাউন চলছে পুরোদস্তুর। এ রাজ্যের মৎস্যজীবীদের সমুদ্র যাওয়ার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করে সরকার।  কিন্তু এখন তেমন কড়াকড়ি নেই। আনলকে পর্ব ফের স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে জনজীবনে। ১৫ জুন থেকে ফের সমুদ্রে মাছ ধরাও শুরু হয়েছে গিয়েছে। কিন্তু ঘটনা হল, সংক্রমণের আশঙ্কায় বন্ধ রাখা হয়েছিল দিঘায় মোহন মৎস্য নিলাম কেন্দ্রটি। ফলে  মাছ বিক্রির ক্ষেত্রে সমস্য়া হচ্ছিল। শেষপর্যন্ত সরকারি সিদ্ধান্তে ১ জুলাই থেকে খুলে যায় দিঘার মোহনা মাছের বাজারটিও। সেদিন অবশ্য বাজারে ইলিশ মাছের দেখা মেলেনি। 

আরও পড়ুন: বাড়ি থেকে আচমকা উধাও, পাটক্ষেত থেকে মহিলার দেহ উদ্ধার করল পুলিশ

জানা গিয়েছে, ১ জুলাই গভীর রাতে ট্রলারে চেপে মৎস্যজীবীরা মাছ ধরতে যান গভীর সমুদ্রে। সেই ট্রলারে চেপে দীঘায় চলে এল মরশুমের প্রথম ইলিশ। ইলশেগুঁড়ি বৃষ্টি হলে আরও ভাল ইলিশ পাওয়া যাবে বলেই আশা মৎস্যজীবীদের। ৮০০ গ্রাম থেকে ১ কেজি ওজনের ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ছ'শো থেকে আটশো টাকা দরে।  উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে  দক্ষিণ ২৪ পরগণার ডায়মন্ড হারবার, কাকদ্বীপ, নামখানা থেকে হাজার তিনেক ট্রলার রওনা দেয় বঙ্গোপসাগরে। ইলিশ নিয়ে ফেরেন মৎস্যজীবীরা। ডায়মন্ড হারবারের নগেন্দ্র বাজারে ক্রেতাদের ভিড়ও ছিল চোখে পড়ার মতো।