অসতর্কতায় ঘটল বিপত্তি। মাঝ নদীতে বিদ্যুৎবাহী হাইটেনশন তারের সঙ্গে ওয়ারলেসের অ্যান্টেনা লেগে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ট্রলারে। বিস্ফোরণ ঘটল ট্রলারের থাকা ব্যাটারিতেও। গুরুতর আহত হয়েছেন এক মৎস্যজীবী। নদীতে ঝাঁপ দিয়ে প্রাণে বেঁচেছেন বাকিরা। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণার কাকদ্বীপ মৎস্য বন্দরে।

আরও পড়ুন: নন্দীগ্রামেও আমফান ত্রাণে 'দুর্নীতি', শোকজ করা হল ২০০ জন তৃণমূল নেতাকে

জানা গিয়েছে, কাকদ্বীপ মৎস্যবন্দরের কাছে কালনাগিনীর নদীর উপর দিয়ে দিয়েছে ১১ হাজার ভোল্টের বিদ্যুৎবাহী তার। ফলে জোয়ারের সময়ে ওই এলাকা নিয়ে যখন কোনও ট্রলার যায়, তখন ট্রলারে লাগানো ওয়ারলেস অ্যান্টেনাটি খুলে নিতে হয়। তাহলে দুর্ঘটনা ঘটল কী করে? এফ বি তারামা নামে সোমবার সকালে স্টিমার ঘাট থেকে কালনাগিনী নদীর উপর দিয়ে কালীনগরের দিকে যাচ্ছিল। কিন্তু ভুলবশত ওয়ারলেস অ্যান্টেনাটি আর খুলে নেওয়া হয়নি। ব্যস আর যায় কোথাও! মাঝ নদীতে বিদ্যুৎবাহী তারের সঙ্গে ওয়ারলেস অ্যান্টেনাটি লেগে যায়। এরপর শর্ট সার্কিটের ফলে বিস্ফোরণ ঘটে ট্রলারে থাকা ব্য়াটারিতে। ভিতরে রাখা জ্বালানি ডিজেলের সংস্পর্শে এসে আগুন দাউদাউ করে ছড়িয়ে পড়ে ট্রলারে।

আরও পড়ুন: অর্জুন সিংয়ের ওপর হামলার প্রতিবাদ, 'রাজ্য় জুড়ে চাক্কা জাম' করে দিল বিজেপি

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন,  আগুন এতটাই ভয়াবহ আকার নেয় যে, চারিদিকে কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায়। চোখের নিমেষে ভষ্মীভূত হয়ে যায় ট্রলারটি। বাকি নদীতে ঝাঁপ দিয়ে প্রাণ বাঁচলেও একজন মৎস্যজীবী গুরুতর আহত হয়েছে। তাঁকে উদ্ধার করে ভর্তি করা হয়েছে কাকদ্বীপ মহকুমা হাসপাতালে।