সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর- নার্সিংহোমের ভিতর দরজা-জানালা বন্ধ করে ধোঁয়া দেওয়ার সময় রোগী মৃত্যু ঘিরে উত্তেজনা ছড়াল তমলুকে। অভিযোগ, রোগী থাকাকালীন অবস্থায় ধোঁয়া দেওয়ার কারনে দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু হয় রোগীর। ঘটনার জেরে নার্সিংহোম চত্বরে তীব্র উত্তেজনা ছড়ায়। ঘটনাস্থলে তমলুক থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানাগেছে, বৃহস্পতিবার সকালে হৃদরোগের সমস্যা নিয়ে তমলুকের একটি নার্সিংহোমে ভর্তি হয়েছিলেন বছর বাহাত্তরের এক বৃদ্ধা। চিকিৎসার পর পুষ্প গুছাইত নামে ওই বৃদ্ধ শনিবার সকালে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন বলে দাবি পরিবারের। তাঁকে ছেড়ে দেওয়ারও কথা বলে নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ। 

অভিযোগ, যে রুমে ওই  বৃদ্ধা ভর্তি ছিলেন সেখানে দরজা-জানালা বন্ধ করে ধোঁয়া দিয়ে স্যানাটাইজ করছিল নার্সিংহোমের এক কর্মী। সে সময় বৃদ্ধা অসুস্থ বোধ করায় চিকিৎসকদের ডেকেও সাড়া পাননি। রুমের মধ্যে ধোঁয়ার কারনে দমবন্ধ হয়ে রোগীর মৃত্যু হয়েছে অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখায় রোগীর আত্মীয়রা। 

নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তীব্র বচসায় জড়ায় রোগীর আত্মীয়রা। ঘটনার জেরে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ধোঁয়া দিয়ে স্য়ানিটাইজ করার অভিযোগ করেছেন অন্যান্য় রোগীর আত্মীয়রাও। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় তমলুক থানার পুলিশ। দীর্ঘক্ষণ পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।